মোটা টাকায় অ্যাম্বুল্যান্স দেয় BSF, মাঝরাতে জাতীয় সড়কে পরিযায়ী শ্রমিকদের নামিয়ে পালায় চালক

২৭০০ টাকা নিয়ে একটি ভিন রাজ্যের অ্যাম্বুলেন্সে ৯ জনকে তুলে দেয় বিএসএফ।

Updated By: May 29, 2020, 01:19 PM IST
মোটা টাকায় অ্যাম্বুল্যান্স দেয় BSF, মাঝরাতে জাতীয় সড়কে পরিযায়ী শ্রমিকদের নামিয়ে পালায় চালক

নিজস্ব প্রতিবেদন : রাতের অন্ধকারে পরিয়ায়ী শ্রমিকদের জাতীয় সড়কের উপর নামিয়ে দিয়ে পালাল ভিন রাজ্যের অ্যাম্বুলেন্স। ঘড়ির কাঁটায় তখন রাত ১০টা। জাতীয় সড়কের উপর পরিযায়ী শ্রমিকদের নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় ভিন রাজ্যের অ্যাম্বুল্যান্সটি। রাতের অন্ধকারে জাতীয় সড়কের উপর শ্রমিকদের ঘোরাঘুরি করতে দেখে এগিয়ে আসেন স্থানীয় যুবকরা। তাঁরাই এই পরিযায়ী শ্রমিকদের খাওয়াদাওয়ার ব্যাবস্থা করেন। রাতে রেল স্টেশনে থাকারও ব্যবস্থা করে দেন। পরিযায়ী শ্রমিকদের হেনস্থার এই ঘটনাটি ঘটেছে মালবাজারের ওদলাবাড়ি বাজারে।

পরিযায়ী শ্রমিকরা জানিয়েছেন, লকডাউনের সময় থেকে তাঁরা অসমে আটকে পড়েছিলেন। তাঁরা যে কম্পানিতে কাজ করতেন, বর্তমানে তা বন্ধ হয়ে রয়েছে। হাতে টাকা-পয়সাও শেষ। এই অবস্থায় অসম থেকে রওনা দেন তাঁরা। কখনও গাড়িতে, আবার কখনও পায়ে হেঁটে বাংলা সীমান্তে আসেন ৯ জন শ্রমিক। তাঁদের অভিযোগ, সীমান্তে বিএসএফ তাঁদের খিচুড়ি খেতে দেয়। তারপর তাঁদের কাছ থেকে ২৭০০ টাকা নিয়ে একটি ভিন রাজ্যের অ্যাম্বুলেন্সে ৯ জনকে তুলে দেয় বিএসএফ।

এরপর রাত ১০টা নাগাদ ওই অ্যাম্বুলেন্স চালক সকল পরিযায়ী শ্রমিককে ওদলাবাড়ি বাজারে ৩১ নাম্বার জাতীয় সড়কের উপর নামিয়ে দিয়ে চলে যান। যাওয়ার সময় তাঁদের কাছ থেকে আরও ৪০০ টাকা নিয়ে চলে যান। রাতের বেলায় জাতীয় সড়কে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘোরাঘুরি করতে দেখে সন্দেহ হয় স্থানীয় যুবকদের। খোঁজ নিয়ে তাঁরা পুরো বিষয়টা জানতে পারেন।

তারপর স্থানীয় যুবকরাই উদ্যোগী হয়ে রাতে শ্রমিকদের জন্য খাবার এবং থাকার ব্যবস্থা করে দেন। তারপর ভোরবেলা অন্য গাড়িতে শ্রমিকদের বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করেন স্থানীয় যুবকরাই। জানা গিয়েছে, ওই পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি বিহারের কিষাণগঞ্জে।

আরও পড়ুন, হাওড়ায় ঢুকবে না শ্রমিক স্পেশাল, চিঠি দিয়ে রেলকে সুনির্দিষ্ট রুট জানাল রাজ্য