close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

শ্লীলতাহানিকাণ্ডে নষ্ট স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজ! চাঞ্চল্যকর অভিযোগ প্রধানশিক্ষিকার, চক্রান্তের দাবি রঞ্জন শীল শর্মার

প্রধান শিক্ষিকার দাবি, ১৬ তারিখ তিনি স্কুলে ঢোকার আগেই প্রাইমারি স্কুলের টিচাররা তাঁকে না জানিয়ে তাঁর রুমে ঢুকেছিলেন।

Updated: Aug 18, 2019, 04:16 PM IST
শ্লীলতাহানিকাণ্ডে নষ্ট স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজ! চাঞ্চল্যকর অভিযোগ প্রধানশিক্ষিকার, চক্রান্তের দাবি রঞ্জন শীল শর্মার

নিজস্ব প্রতিবেদন : প্রধান শিক্ষক সঙ্গে ডাকাবুকো তৃণমূল নেতা। শিলিগুড়ির তৃণমূল কাউন্সিলর রঞ্জন শীল শর্মার বিরুদ্ধে রয়েছে শ্লীলতাহানির মতো একাধিক গুরুতর অভিযোগ। এদিকে আচমকা উধাও হয়ে গিয়েছে স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজ। কীভাবে নষ্ট হল সিসিটিভি হার্ড ডিস্ক? গোটা ঘটনাটিই দলের অভ্যন্তরের চক্রান্ত বলে তোপ দেগেছেন রঞ্জন।

বিতর্কের কেন্দ্রে শিলিগুড়ি পুরসভার ৩৭ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর রঞ্জন শীল শর্মা। রঞ্জনবাবু স্থানীয় নেতাজি জিএস ফ্রি প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক। তাঁর বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ এনেছেন স্কুলের এক শিক্ষিকা। শিক্ষিকার অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে প্রধান শিক্ষক  স্কুলের মধ্যেই তাঁর শ্লীলতাহানি করছেন। বার বার তাঁকে কুপ্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। শিক্ষিকার আরও অভিযোগ, গত ১৩ অগাস্ট স্কুলের মধ্যেই তাঁর সঙ্গে অভব্যতা করেন প্রধান শিক্ষক রঞ্জন শীল শর্মা।

এই ঘটনায় শিলিগুড়ি থানা ও ডিআই-এর কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন শিক্ষিকা। শিক্ষিকা দাবি করেছেন, স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হোক। এখন প্রাইমারি স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজ সিস্টেম থাকে হাইস্কুলে। হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষিকা দু'পক্ষের সামনেই সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত নেন। এরপরই ঘটনায় টুইস্ট। ১৩ তারিখের ঘটনার পর, ১৬ অগাস্ট সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখতে গিয়ে দেখা যায় হার্ড ডিস্ক খারাপ হয়ে গিয়েছে। নষ্ট হয়ে গিয়েছে সব ফুটেজ।

কিন্তু স্কুলের সিসিটিভি কীভাবে উধাও হয়ে গেল? তা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। প্রসঙ্গত, ১৩ তারিখে ঘটনার অভিযোগ দায়ের করা হয়। ১৪ তারিখ স্কুলে কন্যাশ্রী দিবসের অনুষ্ঠান ছিল। তারপর ১৫ তারিখ স্বাধীনতা দিবস উদযাপন হয়। এরপর ১৬ তারিখে দেখা যায় সিসিটিভি ফুটেজ নষ্ট। এখানেই উঠে আসছে আরও একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য। হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষিকার দাবি, ১৬ তারিখ তিনি স্কুলে ঢোকার আগেই প্রাইমারি স্কুলের টিচাররা তাঁকে না জানিয়ে তাঁর রুমে ঢুকেছিলেন। সিসিটিভি ফুটেজ নষ্ট হয়ে যাওয়ার সঙ্গে কি এই ঘটনার কোনও সম্পর্ক আছে? উঠছে প্রশ্ন।

আরও পড়ুন, অনাথ আশ্রমের আবাসিকদের কুপ্রস্তাব, মারাত্মক অভিযোগ তৃণমূল নেতা রঞ্জন শীল শর্মার বিরুদ্ধে

এদিকে শুধু স্কুলই নয়, আরও একটি অনাথ আশ্রম থেকেও শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে রঞ্জন শীল শর্মার বিরুদ্ধে। গোটা ঘটনায় সরগরম শিলিগুড়ির রাজনীতি। যদিও, রঞ্জন শীল শর্মার দাবি, সবটাই দলের একাংশের চক্রান্ত। তাঁর দাবি, দলে থেকে নানা অবৈধ কাজে বাধা দেওয়াতেই এই চক্রান্ত চলছে। অন্যদিকে, রঞ্জন শীল শর্মার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ প্রসঙ্গে গৌতম দেব বলেছেন, যা বলার দলের অন্দরেই বলব।