অবৈধ সম্পর্ক, খুন! সালাউদ্দিন হত্যাকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত মিলি ও বাপির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

২০১১ সালের মে মাসে সল্টলেকে তেরো নম্বর ট্যাঙ্কের সামনে খুব কাছ থেকে গুলি করা হয় বউবাজারের বাসিন্দা, পেশায় পরিবহণ ব্যবসায়ী সালাউদ্দিনকে

Reported By: অর্ণবাংশু নিয়োগী | Edited By: অধীর রায় | Updated By: Sep 16, 2020, 03:01 PM IST
অবৈধ সম্পর্ক, খুন! সালাউদ্দিন হত্যাকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত মিলি ও বাপির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: ব্যবসায়ী সালাউদ্দিন হত্যাকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত মিলি পাল এবং বাপি সাহাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিল শিয়ালদহ আদালত। তার সঙ্গে ২ হাজার টাকা জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  মঙ্গলবারই এদের দুজনকে  দোষী সাব্যস্ত  শিয়ালদহ কোর্ট। বুধবার অর্থাত্ আজ ছিল রায় ঘোষণা। 

২০১১ সালের মে মাসে সল্টলেকে তেরো নম্বর ট্যাঙ্কের সামনে খুব কাছ থেকে গুলি করা হয় বউবাজারের বাসিন্দা, পেশায় পরিবহণ ব্যবসায়ী সালাউদ্দিনকে। সেই অবস্থায় কোনওমতে গাড়ি চালিয়ে উল্টোডাঙা থানায় গিয়ে তিনি নিজেই অভিযোগ দায়ের করেন। তারপরই মৃত্যু হয় ওই ব্যবসায়ীর। ঘটনার তদন্তে নামে সিআইডি। বীরভূমের মুরারই থেকে এক তরুণ-সহ গ্রেফতার করা হয় ২ জনকে। 

তদন্তে  জানা যায়, ধৃত মিলি পালের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক ছিল সালাউদ্দিনের। সেই সম্পর্কে রেশ ধরে সালাউদ্দিনকে বিয়ে করার চাপ দিতে থাকে মিলি। কিন্তু  বিয়ে করতে অস্বীকার করে সালাউদ্দিন। এরপর থেকে প্রতিশোধ নিতে উদ্যোগী হয় প্রেমিকা মিলি।   টাকার বিনিময়ে বাপি সেন নামে এক ব্যক্তিকে খুনের বরাত দেয় সে। জেরায় দুজনেই খুনের কথা স্বীকার করেছে।
 
খুনের তদন্তে নেমে ৩৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করার পাশাপাশি গাড়ি-সহ ৪৭টি জিনিস বাজেয়াপ্ত করে সিআইডি। খুনিকে চিহ্নিত করতে সিআইডিকে সাহায্য করেছে মিলির ১৬৪ পাতার বিবৃতি। গাড়ি থেকে পাওয়া পোড়া সিগারেট লেগে থাকা লালা। সেই লালার সঙ্গে মিলের বাপির ডিএনএ পরীক্ষার রিপোর্ট।  গাড়ি থেকে মেলে হাতের ছাপ। মিলির সঙ্গে বারে কর্মরত আরও একজন মেয়ের বয়ান। 

আরও পড়ুন- 

সবচেয়ে বড় প্রমাণ ছিল গুলি করে পালানোর সময় এক প্রত্যক্ষদর্শীর টিআইপি প্যারেডে শনাক্তকরণ । সবমিলিয়ে খুনের সপক্ষে তথ্যপ্রমাণ সংগ্রহ করেন তদন্তকারী অফিসাররা। যার জন্য ৯ বছর পর শাস্তি পেলেন সালাউদ্দিন খুনের খুনিরা ।