প্রতিবেশীদের সঙ্গে মেলামেশার জন্যই মেয়েকে 'খুন' বাবার! তদন্তে পুলিস

তরুণীর বাবা জয়রাম রায় ও দাদা সুবোধ রায়কে গ্রেফতার করেছে শ্রীরামপুর থানার পুলিস।

Edited By: অধীর রায় | Updated By: Aug 12, 2020, 06:58 PM IST
প্রতিবেশীদের সঙ্গে মেলামেশার জন্যই মেয়েকে 'খুন' বাবার! তদন্তে পুলিস
প্রতীকী চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রতিবেশীদের সঙ্গে মেলামেশা কিংবা কথা বলার শেষ পরিণতি মৃত্যু। মানতে কষ্ট হলেও এটাই বাস্তব। ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীরামপুর পুরসভার ২৭ নং ওয়ার্ডে। প্রতিবেশিদের সঙ্গে মেলামেশা পছন্দ ছিল না বাবার। বারণ করা সত্ত্বেও মেয়ে প্রতিবেশীদের সঙ্গে মেলামেশা চালিয়ে যাওয়াতে শ্বাসরোধ করে মেয়েকে খুন করে বাবা আর দাদা।! খুনের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে বাবা ও দাদাকে।

মঙ্গলবার রাতে প্রতিবেশীরা চিৎকার চেঁচামেচির আওয়াজ শুনতে পান। অভিযোগ, ফুল কুমারী নামে আঠারো বছর বয়সী ওই তরুণীকে মারধর করত তাঁর পরিবার। চন্দননগর কমিশনারেটের পুলিস জানিয়েছে, তরুণীর সঙ্গে এক  যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এটা মানতে পারেনি ফুল কুমারীর পরিবার।  প্রেমের বিষয়টি বাবা জানতে পারার পর তাঁকে মারধর করা হয়।

আরও পড়ুন: গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে রণক্ষেত্র গলসি

বেধড়ক মারধরের অচৈতন্য সহয়ে পড়েন ওই তরুণী। এই অবস্থায় ওয়ালস হাসপাতালে নিয়ে যায় হয় তাঁকে। চিকিৎসকরা জানান, হাসপাতালে আনার আগেই মৃত্যু হয়েছে তরুণীর। তাঁর গলায় ফাঁসের চিহ্ন রয়েছে। তরুণীর বাবা জয়রাম রায় ও দাদা সুবোধ রায়কে গ্রেফতার করেছে শ্রীরামপুর থানায় পুলিস।

২৭ নং ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর পিন্টু নাগ জানান, দিন দশেক আগে নতুন মাহেশ এলাকায় আসেন রিষড়া গ্লাস কারখানার কর্মী জয়রামও তার মেয়ে ফুল কুমারী। মেয়ে খুব মিশুকে ছিল। যদিও তাঁর পরিবার এলাকার লোকজনের সঙ্গে খুব মিশত না। মেয়ে বাইরের কারোর সঙ্গে কথা বললে অশান্তি করত জয়রাম।