স্কুল নির্বাচনে হেরে তৃণমূল কাউন্সিলরের তাণ্ডব! আতঙ্কে কেঁদে ভাসালেন হেডমাস্টার

 সামান্য স্কুল-নির্বাচনে হেরে গিয়েই তৃণমূল কাউন্সিলরের তাণ্ডব, ব্যালট ছিনতাই! আতঙ্কে হাউহাউ করে কেঁদে ফেললেন প্রধান শিক্ষক

Updated By: Nov 24, 2022, 01:58 PM IST
স্কুল নির্বাচনে হেরে তৃণমূল কাউন্সিলরের তাণ্ডব! আতঙ্কে কেঁদে ভাসালেন হেডমাস্টার
নিজস্ব চিত্র।

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: সামান্য স্কুল-নির্বাচনে হেরে গিয়েই তৃণমূল কাউন্সিলরের তাণ্ডব। এমনকী ব্যালট পর্যন্ত ছিনতাই করে নিলে।এসব দেখেই আতঙ্কে হাউহাউ করে কেঁদে ফেললেন প্রধান শিক্ষক। ঘটনাটি ঘটেছে খড়্গপুর শহরের তেলেগু বিদ্যাপীঠের পিআইই (PIE) প্রতিনিধি নির্বাচনে। মঙ্গলবার এই নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন ২ জন। বিদ্যালয়ের একটি সামান্য নির্বাচনেই যদি শাসকদলের এই তাণ্ডব হয়, তবে আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে কি হতে চলেছে? সেই আতঙ্কই এখন গ্রাস করেছে বিরোধীদল থেকে সাধারণ মানুষকে।

আরও পড়ুন, Weather Today: কলকাতায় আজ মরসুমের শীতলতম দিন, তাপমাত্রা নামল ১৬ এর ঘরে

নির্বাচনে একজন প্রার্থী স্থানীয় তৃণমূল  কাউন্সিলর (১৫ নং ওয়ার্ডের) বনথা মুরলী। অপরজন এলাকারই প্রাক্তন শিক্ষক এম. কালি দাস। শিক্ষক এবং অভিভাবক প্রতিনিধি মিলিয়ে ভোটার ছিলেন ১২ জন। সহকারী বিদ্যালয় পরিদর্শক (SI)-এর উপস্থিতিতে এবং প্রধান শিক্ষকের পরিচালনায় ভোট সম্পন্ন হয় নির্বিঘ্নে। তবে, ফলাফলে হতাশ হতে হয় কাউন্সিলর বনথা-কে। ৭-৪ ব্যবধানে পরাজিত হন তিনি। তবে এই পরাজয় মেনে নিতে পারেননি তিনি। অভিযোগ তাঁর নির্দেশে বিদ্যালয়ে তাণ্ডব দেখান কর্মী সমর্থকরা। অভিযোগ করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক কে শ্রীরামচন্দ্র মূর্তি।

শুধু তাই নয়, ব্যালট পেপার ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগও উঠেছে। এই বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিস সুপার খড়গপুর টাউন থানা এবং মহকুমা প্রশাসককে লিখিতভাবে অভিযোগ জানিয়েছেন প্রধান শিক্ষক কে শ্রীরাম চন্দ্র মূর্তি। যদিও, এসবের পরোয়া না করে মুরলী এই ফলাফল ভেস্তে দিয়ে পুনরায় নির্বাচনের জন্য চাপ দেন। শেষমেশ তাঁর চাপের কাছে নতিস্বীকার করে পুনরায় নির্বাচনের প্রস্তাব মেনে নেওয়াও হয়। বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে নোটিস। স্কুলের তরফে অভিযোগ জানিয়েছেন খড়্গপুর টাউন থানায়।

অন্যদিকে, এই ঘটনার বিষয়ে বুধবার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি ক্যামেরার সামনেই হাউহাউ করে কেঁদে ফেলেন। স্বীকার করেন, তিনি আতঙ্কে আছেন। অপরদিকে, অভিযোগ অস্বীকার করে বনথা ফোনে জানায়, আমাকে অভিভাবকরা আগেই পিআইই (PIE) প্রতিনিধি হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। স্কুল সেটা মানেনি। উল্টে নির্বাচনে কারচুপি করেছিলেন ওই প্রধানশিক্ষক। তাই পুনরায় নির্বাচনের নোটিস দেওয়া হয়েছে। তিনি এও বলেন, "আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ আনা হচ্ছে। আমি যদি গন্ডগোল করতেই চাইতাম, তাহলে তো নির্বাচনে হারতামই না। যা হোক করে জিতে যেতাম!"

তবে এই ঘটনা প্রসঙ্গে বিজেপি'র সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, "আপনারাই বুঝে নিন, রাজ্য জুড়ে পঞ্চায়েত নির্বাচন কি রকম হবে। মুখ্যমন্ত্রী যতই ওই সমস্ত শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের বুলি আওড়ান না কেন, যাঁরা সামান্য স্কুল নির্বাচনে ব্যালট ছিনতাই করে, তাদের অভিসন্ধি বোঝাই যাচ্ছে।" তবে শহর জুড়ে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দলের মধ্যেই তৃণমূলের কাউন্সিলরের এই আচরণে ব্যাপক ক্ষোভ দেখা দিয়েছে ।

আরও পড়ুন, Royal Bengal Tiger: পড়ন্ত বিকেলে সুন্দরবনের জঙ্গল থেকে বেরিয়ে এল বাঘ...

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)