ঘাসফুলে ভাই সঞ্জয়, দাদা অর্জুনকে ৬ বছরের জন্য সাসপেন্ড করল তৃণমূল

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি নিয়ে যাঁরা নেতা হলেন, তাঁরা-ই পিছন থেকে ছুরি মারার চেষ্টা করলেন। এই চক্রান্ত সফল হবে না।

Updated: Mar 15, 2019, 06:01 PM IST
ঘাসফুলে ভাই সঞ্জয়, দাদা অর্জুনকে ৬ বছরের জন্য সাসপেন্ড করল তৃণমূল

নিজস্ব প্রতিবেদন : গড় মজবুত করতে মোক্ষম চাল চালল তৃণমূল কংগ্রেস। অর্জুন সিংয়ের খুড়তুতো ভাই সঞ্জয় সিং যোগ দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসে। তাঁর সঙ্গেই যোগ দিলেন প্রমোদ সিং নামে ভাটপাড়ার এক বিজেপি নেতাও। সঞ্জয় সিংয়ের দলে যোগদানের কথা জানান তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টপাধ্যায়।

পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, "আমরা আরও আবেদন পেয়েছি।" তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি নিয়ে যাঁরা নেতা হলেন, তাঁরা-ই পিছন থেকে ছুরি মারার চেষ্টা করলেন। এই চক্রান্ত সফল হবে না। একারণে ক্ষুব্ধ সবাই তৃণমূলের ছাতার তলায় আসতে চেয়েছেন। গোটা বিষয়ে ক্ষুব্ধ ভাটপাড়ার অন্য দলের লোকেরাও এসেছেন। বিজেপি, সিপিআইএম ও কংগ্রেস থেকেও তৃণমূলে যোগদান করতে এসেছেন। বলেন, ব্যারাকপুরের লোকসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদীর জয়ের লক্ষ্যে সকলে মিলে একসঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়বেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের নেতৃত্বে বাংলায় উন্নয়নকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবেন তাঁরা।

আরও পড়ুন, তৃণমূল প্রার্থী 'বন্ধু' মুনমুনের সঙ্গে 'কফি' খেতে চান বিজেপির বাবুল

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে অর্জুন সিংয়ের বিধায়ক পদ নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি জানান, তাঁকে ৬ বছরের জন্য দলে থেকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিল্লিতে মুকুল রায়ের উপস্থিতিতে বিজেপিতে  যোগ দেন অর্জুন সিং। আর তারপরই ভাটপাড়া পুরসভায় তৃণমূলের পুরবোর্ডের ভবিষ্যত নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়। যদিও এদিন সাংবাদিক বৈঠকে পার্থ চট্টোপাধ্যায় দাবি করলেন, ভাটাপাড়া পুরসভায় তৃণমূলের বোর্ড অক্ষুণ্ণ থাকবে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, সম্পর্কে খুড়তুতো ভাই হলেও দীর্ঘদিন ধরেই সঞ্জয়-অর্জুনের মধ্যে সম্পর্ক ভালো নেই। কথা বলা তো দূরঅস্ত, মুখ দেখাও বন্ধ। অর্জুন সিং যখন মমতা অনুগামী, তখন বিরোধী ছিলেন সঞ্জয়। এখন যখন ঘাসফুল শিবির ছেড়ে পদ্ম শিবিরে নাম লিখিয়েছেন অর্জুন। আর তারপরই মমতা অনুগামী সঞ্জয়।