গোটা দেশে এনআরসির ঘোষণা অমিতের, একটা লোককেও তাড়াতে দেব না, পাল্টা মমতার

অসমে এনআরসি-র প্রেক্ষাপটও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন মমতা।

Sutapa Sen | Updated: Nov 20, 2019, 11:16 PM IST
গোটা দেশে এনআরসির ঘোষণা অমিতের, একটা লোককেও তাড়াতে দেব না, পাল্টা মমতার

সুতপা সেন: শীতকালীন অধিবেশনে আরও একবার নাগরিকপঞ্জি নিয়ে তাঁর সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি স্পষ্ট করে দিয়েছে অমিত শাহ। বুধবার রাজ্যসভায় ঘোষণা করেছেন, গোটা দেশেই হবে এনআরসি। মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘি থেকে পাল্টা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানিয়ে দিলেন, ভয় পাওয়ার কারণ নেই। পশ্চিমবঙ্গে কোনওভাবেই এনআরসি হবে না।              

এদিন সভায় মমতা বলেন,''এনআরসি নিয়ে কিছু লোক ভয় দেখাচ্ছে। ভরসা রাখবেন। আমদানি করা নেতার কথায় বিশ্বাস করবেন না। সে হিন্দুই হোক, বা মুসলমান হোক। আমরা যারা মাটিতে থেকে লড়াই করি, আপনাদের পাশে আছি। এনআরসি হবে না। মাথায় রাখুন। চিন্তার কারণ নেই। আপনারা এদেশের নাগরিক। একটাও লোককে বিতাড়িত করতে দেব না।''

অসমে এনআরসি-র প্রেক্ষাপটও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন মমতা। বলেন,''কংগ্রেস আমলে অসম চুক্তির একটা অংশ হিসেবে ছিল এনআরসি। তারপর বিজেপি এসে এটা করেছে। মনে রাখবেন, আগুন লাগলে হিন্দুও রেহাই পায় না, মুসলিমও পায় না, তপশিলীও পায় না। দাঙ্গা লাগলে সবার ঘরেই লাগে।'' 

এনআরসি হলে হিন্দুদের স্বার্থও যে সুরক্ষিত হবে না, তাও জানিয়ে দেন মমতা। তাঁর কথায়, ''একটাও হিন্দু বাদ পড়বে না। অসমে ১৪ লক্ষ হিন্দু বাঙালিকে বাদ দেওয়া হয়েছে। মুসলিমদের নামও রয়েছে। নাম রয়েছে পাহাড়িদের। রাজবংশীদের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। তারা সব ডিটেনশন ক্যাম্পে আছে। বাংলায় এসব হবে না। এটা মানবিকতার জায়গা। মানুষের জায়গা। সভ্যতার জায়গা। শিক্ষার জায়গা। সংস্কৃতির জায়গা ভয় পাবেন না।''

অমিত শাহ বলেন,''শরণার্থী হিন্দু, পার্সি, বৌদ্ধ, জৈনদের নাগরিকত্ব দিতে নাগরিক সংশোধনী বিলের আওতায় আনা হবে। কারণ পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানে তাঁরা নির্যাতিত।'' এর পাশাপাশি গোটা দেশে, এমনকি অসমেও ফের নাগরিকপঞ্জি হবে বলেও জানিয়ে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

আরও পড়ুন- দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বেসরকারিকরণ, BPCL, SCI, Concor বিক্রির সিদ্ধান্ত