আচমকাই তৃণমূল ব্লক সভাপতির 'আশ্রমে' মুকুল রায়, জোর জল্পনা অনুব্রতর গড়ে

খোদ অনুব্রতর গড়ে মুকুল রায়ের হানায় যথেষ্ট উত্সুক বীরভূম জেলার রাজনৈতিক মহল

Edited By: সিকান্দর আবু জ়াফর | Updated By: Aug 30, 2020, 07:17 PM IST
আচমকাই তৃণমূল ব্লক সভাপতির 'আশ্রমে' মুকুল রায়, জোর জল্পনা অনুব্রতর গড়ে
ছবি-নিজস্ব

নিজস্ব প্রতিবেদন: বীরভূমে তৃণমূল ব্লক সভাপতির 'আশ্রমে' বিজেপি নেতা মুকুল রায়। আশ্রমের অতিথিশালার বন্ধ কামরায় একান্তে বেশ খানিকক্ষণ কাটালেন দুজন। রবিবার এনিয়ে জোর জল্পনা বীরভূমের রাজনৈতিক মহলে।

আরও পড়ুন-গায়ে জ্বর, রান্না করতে না পারায় স্ত্রীর গায়ে আগুন লাগিয়ে দিল স্বামী

রবিবার দুপুরে আচমকাই নলহাটি দুনম্বর ব্লকের তৃণমূল সভাপতি বিভাস অধিকারি প্রতিষ্ঠিত আশ্রমে চলে আসেন মুকুল রায়। নলহাটি দুন্বর ব্লকের নবহিমায়েতপুরে অনুকুল চন্দ্রের ওই আশ্রমটি প্রতিষ্ঠা করেন বিভাসবাবু। শুধু তাই নয় এদিন আশ্রমে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ করম খানও। এনিয়েই রাজনৈতিক জল্পনা শুরু হয়েছে জেলায়।

খোদ অনুব্রত মণ্ডলের গড়ে মুকুল রায় কেন? এনিয়ে বিভাসবাবু বলেন, আশ্রমে যে কেউ আসতে পারেন। তাছাড়া আমি কিছুদিন আগে পথ দুর্ঘটনায় জখম হয়েছিলাম। তাই মুকুলদা আমাকে দেখতে এসেছেন।

আরও পড়ুন-রাজ্যের প্রত্যেক JEE, NEET পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রে পৌঁছে দেবে বিজেপি, আশ্বাস অর্জুনের

এদিন আশ্রমে দেখা মেলে পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ করম খানেরও। রাজনৈতির মহলের দাবি তিনি তৃণমূলের বিক্ষুব্ধ লবির অংশ। গত তিনদিন ধরে তিনি আশ্রমে রয়েছেন বলে জানান। এনিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, মুকুলবাবুর সঙ্গে দেখা করিনি। আমি দলের বিক্ষুব্ধ কেউ নই। দলে আছি। যেদিন দল ছাড়ব সেদিন প্রকাশ্যে ঘোষণা করেই ছাড়ব।