বিন্দাস সনাতনের উদাত্ত গলায় খেলা করছে বর্ষার রাগ

Updated: Aug 3, 2017, 08:52 PM IST

ওয়েব ডেস্ক : দেড় বছরের শিশুর শরীরে সাত সাতটা সুচ ফোটানোর গুরুতর অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। দেড় বছরের শিশুর ওপর যৌন নির্যাতনের জঘন্য অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। শিশুর নৃশংস মৃত্যুতে তিনিই মূল অভিযুক্ত। তারপরেও বিন্দাস পুরুলিয়ার সনাতন ঠাকুর। পুলিসের সামনেও তাঁর গলায় খেলা করছে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতের নানা রাগ।

ঠান্ডা মাথার খুনী কী রকম হতে পারে, সেলুলয়েডে দেখিয়েছিল বাজিগর। বাস্তবে পুরুলিয়ার সনাতন ঠাকুরও কম যান না। ঘন শ্রাবণে তাঁর গলায় বর্ষার রাগ। দেড় বছরের শিশুর শরীরে সাত সাতটা সুচ ফোটানোর ঘটনায় মূল অভিযুক্ত হিসেবে গ্রেফতার হয়েছেন। বডি ল্যাঙ্গোয়েজ দেখলে কেউ বিশ্বাস করবে!

উত্তরপ্রদেশের রেনিকোট থেকে শক্তিপুঞ্জ এক্সপ্রেস ধরেছিলেন ৪ দুঁদে পুলিস অফিসার। ট্রানজিট রিমান্ডে আনা হচ্ছিল সনাতনকে। AC ফার্স্টক্লাস II-টিয়ারে খোশমেজাজে ছিলেন তিনি। গোটা যাত্রাপথে গোয়েন্দাদের একের পর এক গান শুনিয়েছেন।

৩০২ ধারায় সরাসরি খুনের অভিযোগ। দোষী প্রমাণিত হলে কড়া সাজা নিশ্চিত। এমন পরিস্থিতিতে সনাতনের স্ট্যামিনা দেখে গোয়েন্দারা তাজ্জব! এলাহাবাদি ঘরানার উচ্চাঙ্গ সংগীতের তালিম রয়েছে সনাতনের।  কিন্তু তা বলে জীবনের এমন চরম মুহূর্তেও, এত নির্বিকার থাকা যায়!

স্ত্রী মারা যাওয়ার এক বছরের মধ্যে মঙ্গলার প্রেমে পড়েছিলেন সনাতন। মঙ্গলার মায়ের সঙ্গেও তাঁর সম্পর্ক ছিল বলে অভিযোগ। পথের কাঁটা সরাতেই দেড় বছরের শিশুকে খুন। এমন অভিযোগই সামনে আসছে। এত কাণ্ডের পরেও কাঁচা পিরিত ভেঙে যাওয়ায় বিষণ্ণ সনাতন।

আরও পড়ুন, ১৬ বছরের কিশোরকে একবছর ধরে লাগাতার গণধর্ষণ ১৫ কিশোরের!