ভাটপাড়ায় গুন্ডারাজ শেষ করবে তৃণমূল, পুরসভায় দুর্নীতির তদন্তে বসবে কমিশন

প্রায় ২ ঘণ্টা সভা চলার পর রবিবার সন্ধ্যে ৬.১০ মিনিট নাগাদ মঞ্চ ছাড়েন তৃণমূল নেতারা। তার কয়েক মিনিটের মধ্যে এলাকার দখল নেন বিজেপি কর্মীরা। বিজেপি কর্মীদের ভিড়ে অবরুদ্ধ হয়ে যায় কাছারি রোড। 

Updated By: Mar 17, 2019, 08:09 PM IST
ভাটপাড়ায় গুন্ডারাজ শেষ করবে তৃণমূল, পুরসভায় দুর্নীতির তদন্তে বসবে কমিশন

তন্ময় প্রামাণিক 

ভোটের বাজারে ছাড় নেই রবিবারেরও। এদিনই তৃণমূল - অর্জুন সিং দ্বৈরথে আরও সরগরম হয়ে উঠল ভাটপাড়ার রাজনীতি। একদিকে ভাটপাড়ার দখল যে তাদেরই হাতে তা প্রমাণে মরিয়া তৃণমূল। পালটা অর্জুন বোঝালেন বেতাজ বাদশা এখনো তিনিই। 

 

রবিবার ভাটপাড়ার কাছারি রোডে ছিল তৃণমূলের কর্মীসভা। নামে কর্মীসভা হলেও আসলে তা ছিল অর্জুনের বিরুদ্ধে দলের শক্তিপ্রদর্শনের মঞ্চ। তাই সভায় হাজির ছিলেন উত্তর ২৪ পরগনার তাবড় তৃণমূল নেতা। ছিলেন জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। ছিলেন জেলায় দলের পর্যবেক্ষক নির্মল ঘোষ, মন্ত্রী তাপস রায়, বিধায়ক পার্থ ভৌমিক, বারাকপুরের তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদী। 

সভার শুরুতে গুনে গুনে মঞ্চে হাজির করা হয় তৃণমূলের ১৯ জন কাউন্সিলরকে। এর পরই একযোগে অর্জুন সিংকে 'গদ্দার' বলে হামলা শুরু করেন তৃণমূলের নেতারা। তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়, ৩৫ আসনের ভাটপাড়া পুরসভা যে তৃণমূলেরই দখলে ১৯ কাউন্সিলরের উপস্থিতি তা প্রমাণ করল। 

তৃণমূলের জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, 'দিনের পর দিন ভাটপাড়া পুরসভা লুঠ করেছেন অর্জুন সিং। মানুষকে ভোট দিতে দেননি। ভাটপাড়ায় গুন্ডারাজ শেষ করবে তৃণমূল।' অর্জুন সিংয়ের দুর্নীতির তদন্তে কমিশন বসানো হবে বলে জানান তিনি। 

জ্যোতিপ্রিয়র আশ্বাস, লোকসভা নির্বাচনের পর ভাটপাড়ায় বোর্ড গঠন করবে তৃণমূল। তার পর ঠিকাদার ও ঠিকা কর্মীদের বকেয়া মেটাবে পুরসভা। 

সমঝোতায় জল, লোকসভা ভোটে পশ্চিমবঙ্গে একলাই লড়বে কংগ্রেস

প্রায় ২ ঘণ্টা সভা চলার পর রবিবার সন্ধ্যে ৬.১০ মিনিট নাগাদ মঞ্চ ছাড়েন তৃণমূল নেতারা। তার কয়েক মিনিটের মধ্যে এলাকার দখল নেন বিজেপি কর্মীরা। বিজেপি কর্মীদের ভিড়ে অবরুদ্ধ হয়ে যায় কাছারি রোড। কিছুক্ষণের মধ্যে সেখানে দেখা মেলে অর্জুন সিংয়েরও। ততক্ষণে তৃণমূলের সভাস্থল বিজেপি কর্মীদের দখলে। Zee ২৪ ঘণ্টাকে অর্জুন জানান, 'তৃণমূল আর কোনও বিষয় নয়। তৃণমূল ফিনিশ। এখানে এখন শুধু বিজেপি - বিজেপি আর বিজেপি।'

মিটিং চলে প্রায় ২ ঘণ্টা। চারিদিকে পুলিস র্যাফ সেন্ট্রাল ফোর্স। ৬.১০ মিনিটে মিটিং শেষ। তার ১০ মিনিটের মধ্যেই গোটা রাস্তার দখল নিল বিজেপি কর্মীরা। কিছুক্ষণের মধ্যেই দেখা গেল অর্জুন সিংকে। রাস্তা দীর্ঘক্ষণ অবরুদ্ধ হয়ে রইল রাস্তা। তৃণমূলের সভাস্থলের দখল নেয় বিজেপি। গোটা এলাকা দাপিয়ে বেড়ায়। 

অর্জুন বলেছে, তৃণমূল কোনও বিষয় নয়। তৃণমূল ফিনিশ। এখানে শুধু বিজেপি বিজেপি বিজেপি।