ব্যারাজের বাধা কাটিয়ে রূপোলিশস্য ফের এলাহাবাদে, ফারাক্কার গঙ্গায় ছাড়া হল ইলিশের চারা

যদিও আগে অবস্থাটা এরকম ছিল না। সেন্টার ইনল্যান্ড ফিসারিস রিসার্চ ইন্সটিটিউট অর্থাত্‍ CIFRI এর মতে ব্যারাজ হওয়ার আগে বেনারস, এলাহবাদ অবধি পৌঁছে যেতে ইলিশ। 

Updated By: Sep 24, 2020, 11:58 PM IST
ব্যারাজের বাধা কাটিয়ে রূপোলিশস্য ফের এলাহাবাদে, ফারাক্কার গঙ্গায় ছাড়া হল ইলিশের চারা

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রযুক্তির বাঁধে আটকে গিয়েছিল ইলিশের তীর্থযাত্রা। তবে এবার এলাহবাদে ইলিশ পেতে ফারাক্কার গঙ্গায় ট্যাগ দিয়ে ইলিশ চারা ছাড়ল  CIFRI। আদতে ফারাক্কা পেরিয়ে গঙ্গার এপারে সাধারণত ইলিশ পৌঁছায় না। যদিও আগে অবস্থাটা এরকম ছিল না। সেন্টার ইনল্যান্ড ফিসারিস রিসার্চ ইন্সটিটিউট অর্থাত্‍ CIFRI এর মতে ব্যারাজ হওয়ার আগে বেনারস, এলাহবাদ অবধি পৌঁছে যেতে ইলিশ। 

আরও পড়ুন:  নতুন সাজে সেজে উছঠে চন্দননগরের ২৭০ বছরের লালদিঘি

ইলিশের সেই ধারা বজায় রাখতে চারটি নতুন নীতি নিয়েছে CIFRI। যার মধ্যে একটি ফারাক্কার এপারে অর্থাত্‍ গঙ্গার আপস্ট্রিমে ইলিশের চারা ফেলা। বৃহস্পতিবার সেই মত ট্যাগ দিয়ে ৪০টি ইলিশের চারা ফেলা হয়েছে। ইলিশ ছাড়াও  রুই, কাতলা,মৃগেল মাছের চারা ছাড়া হয়েছে ফারাক্কার গঙ্গায় । চলতি বছরে এক লাখ মাছের চারা ছেড়েছে CIFRI।

বুধবার প্রায় এক লক্ষ দশ হাজার মাছের চারা ছাড়া হয়েছে ফরাক্কার গঙ্গায়। রুই, কাতলা, মৃগেল, কালবোসের সঙ্গে ছিল ইলিশও। ফরাক্কা ব্যারেজের ডাউন স্ট্রিমে পর্যাপ্ত ইলিশ মিললেও, আপার স্ট্রিমে উত্‍পাদন একেবারে কম। ফলে ব্যারেজের ওপরের অংশের মত্‍স্যজীবীরা রুপোলি শস্যের মাধ্যমে লাভের মুখ দেখার সুযোগ পান না। তবে এবার সেই দুঃখ খানিক ঘুচবে বলেই আশা।