পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ, 'তৃণমূলের ব্যানার খোলা হলে, বিজেপির নয় কেন?'

WB assembly election 2021: চন্দ্রকোনা শহরের তৃণমূল পক্ষ থেকে কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করছে। 

Updated By: Mar 3, 2021, 12:25 PM IST
পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ, 'তৃণমূলের ব্যানার খোলা হলে, বিজেপির নয় কেন?'

নিজস্ব প্রতিবেদন: নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়ার পর সরকারি জায়গা থাকা রাজনৈতিক দলের ব্যানার,পতাকা খোলা নিয়ে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ। আর এতেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। এবার প্রশাসনের সেই কাজে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলল শাসকদল তৃণমূল।

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা পৌরসভা এলাকায় ঘাটাল চন্দ্রকোনা রাজ্যসড়ক,রেগুলেটেড মার্কেট সহ একাধিক সরকারি জায়গায় এখনও লাগানো রয়েছে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর ছবি দেওয়া ব্যানার,হোর্ডিং। তৃণমূলের পতাকা ব্যানার খুলে নেওয়া হলেও,সেগুলো খোলার কোনও উদ্যোগ নেয়নি নির্বাচন কমিশনের অধীনে ব্লক প্রশাসন। 

এবিষয়ে চন্দ্রকোনা শহরের তৃণমূল পক্ষ থেকে কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করছে। দ্রুত বিজেপির ওইসব ব্যানার হোর্ডিং খুলে নেওয়ার দাবি জানানো হয় তৃণমূলের তরফে। এবিষয়ে বিজেপির বক্তব্য,ভোট ঘোষণার পর তাঁরা নিজে থেকেই খুলে নেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে,সদ্য ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করা হয়েছে। তাই সব ব্যানার খোলা সম্ভব হয়নি। বাকি যেগুলি রয়ে গেছে সেগুলিও সরিয়ে নেওয়া হবে।

 তৃণমূলের অভিযোগ ভিত্তিহীন, সব রাজনৈতিক দলের পতাকা কিছু কিছু জায়গায় বিক্ষিপ্ত ভাবে রয়ে গিয়েছে। কমিশনের পদক্ষেপের আগেই আমরা নিজে থেকে সরিয়ে নিচ্ছি। 

উল্লেখ্য,ভোট ঘোষণার পর লাগু হয়েছে আদর্শ আচরণবিধি, এসময় সরকারি জায়গায় রাজনৈতিক দলের প্রচার বা সরকারি প্রকল্পের বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ। বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়ার পর কমিশনের তরফে সরকারি জায়গায় থাকা রাজনৈতিক দলের পতাকা,ব্যানার ও সরকারি প্রকল্পের বিজ্ঞাপনের হোর্ডিং খুলে নিয়ে সিজ করা হয়। ভোট ঘোষণার পর থেকেই চন্দ্রকোনা থানা এলাকা জুড়ে কমিশনের তরফে এই অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানা যায়।