WB Assembly Election 2021: 'মানুষকে খেপাতে শুরু করেছেন', Mamata-কে গৃহবন্দির করার দাবি Dilip-র

 'সেন্ট্রাল ফোর্সের উপর হামলা করেছে, গুলি খেয়েছে'।

Updated By: Apr 10, 2021, 09:27 PM IST
WB Assembly Election 2021: 'মানুষকে খেপাতে শুরু করেছেন', Mamata-কে গৃহবন্দির করার দাবি Dilip-র

নিজস্ব প্রতিবেদন:  স্রেফ দায় চাপানোই নয়, শীতলকুচির গুলিকাণ্ডের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) গৃহবৃন্দি করার দাবি তুললেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। বললেন, 'বুঝতে পেরেছেন হেরে যাবেন, তাই মানুষকে খেপাতে শুরু করেছেন'।    

চতুর্থ দফায় ভোটে রক্তাক্ত বাংলা। শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে ৪ জনের মৃত্যু। তোলপাড় গোটা রাজ্য। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ইস্তফার দাবি তুলে সিআইডি-কে ঘটনার তদন্তভার দিয়েছেন মমতা। তাঁর সাফ কথা, 'আজকের ঘটনার জন্য দায়ী অমিত শাহ। উনিই ষড়যন্ত্রকারী। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে দায়ী করব না। তারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে চলে। নির্বাচন কমিশনের কথায় চললেও ওরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীনে। এখানে অঘোষিত ৩৫৬ করে কাজ চলছে'। তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে পাল্টা সুর চড়িয়ে নরেন্দ্র মোদির (PM Modi) বক্তব্য, 'দিদি, সমস্য়া কেন্দ্রীয় বাহিনীকে নিয়ে নয়, সমস্যা আপনার হিংসার রাজনীতিকে নিয়ে'। এবার মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

আরও পড়ুন: WB Assembly Election 2021: খুনের মানসিকতা নিয়েই গুলি শীতলকুচিতে; সরব Sujan, মমতার বিরুদ্ধে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ Bharati-র

কী বললেন? দিলীপ ঘোষের সোজাসাপ্টা প্রতিক্রিয়া, 'যাঁরা মারা গিয়েছেন, তাঁদের মৃত্যুর দায় পুরোপুরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তিনি মানুষকে আহ্বান জানিয়েছেন, সেন্ট্রাল ফোর্সকে ঘিরতে, ইভিএম আটকাতে'। তাঁর অভিযোগ, 'সমাজ বিরোধীরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে ভোট করত। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খেপিয়েছেন। তারা সেন্ট্রাল ফোর্সের উপর হামলা করেছে। গুলি খেয়েছে। আমার মনে হয়, ওঁর বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা হওয়া উচিত। প্রচার থেকে সরিয়ে গৃহবন্দি করে রাখা দরকার'।

আরও পড়ুন: West Bengal Election 2021: মহিলাদের হাতে গৃহস্থালির জিনিসপত্র, উন্মত্ত জনতার থেকে প্রাণ বাঁচাতে গুলি: কমিশন

চুপ করে বসে নেই নির্বাচন কমিশনও। কমিশনের তরফের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, আত্মরক্ষা ও সরকারি সম্পত্তি বাঁচাতে গুলিতে চালিয়েছে সিআইএসএফ (CISF)।  ঠিক কী ঘটেছিল? কমিশনে ইতিমধ্যেই রিপোর্ট দিয়েছেন বিশেষ পুলিস পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে। সেই রিপোর্টে উল্লেখ,  বাহিনীর হাত অস্ত্র কাড়তে এসেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। সেকারণেই গুলি চালাতে বাধ্য হন।