WB Assembly Election 2021: BJPর ভয়ে ন্যাকা কান্না নয়, পাড়ার ঝগড়ুটে মহিলাদের বুথ এজেন্ট করা হবে: মমতা

 বিজেপিকে নিয়ে এদিন মমতার মন্তব্য, 'ভোট কেন্দ্রে গিয়ে বিজেপি ভয় দেখাচ্ছে এসব বলবেন না। কী ভয় দেখাবে। ভোট কেন্দ্রের ভিতর গায়ে হাত দেওয়ার ক্ষমতা নেই ওদের।' 

Updated By: Apr 4, 2021, 01:18 PM IST
WB Assembly Election 2021: BJPর ভয়ে ন্যাকা কান্না নয়, পাড়ার ঝগড়ুটে মহিলাদের বুথ এজেন্ট করা হবে: মমতা
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিজেপির ভয়ে ন্যাকা কান্না নয়। প্রয়োজনে মহিলাদেরই বুথে বসানো হবে। খানাকুলের সভা থেকে স্পষ্ট নিদান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আজ রবিবার হাওড়া, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় পরপর পাঁচটি সভা রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এদিন হুগলির খানাকুল থেকেই প্রচার শুরু করেন তৃণমূল নেত্রী।

সেখানেই ভোট বুথের অরাজকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মমতা। বলেন, 'বিজেপি মারছে, বাইরে থেকে গুন্ডা এনে ভয় দেখাচ্ছে, এই ন্যাকা কান্না আমি সহ্য করব না। যার সাহস নেই এখন থেকেই বলে দিন বসব না। আমার মহিলাদের এনে বসাও, আমার কন্য়াশ্রীকে ধরে এনে বসাও, আমার ছাত্র-যুব-দের ধরে এনে বসাও। তাঁরা অনেক স্ট্রং।'

শুধু তাই নয়, ভাল কাজ হলে মহিলাদের পুরস্কৃত করারও কথা বলেছেন খোদ নেত্রী। বিজেপিকে নিয়ে এদিন মমতার মন্তব্য, 'ভোট কেন্দ্রে গিয়ে বিজেপি ভয় দেখাচ্ছে এসব বলবেন না। কী ভয় দেখাবে। ভোট কেন্দ্রের ভিতর গায়ে হাত দেওয়ার ক্ষমতা নেই ওদের।' 

নির্বাচন কমিশনের নয়া নির্দেশিকার কথা উল্লেখ করে এদিন মমতার মন্তব্য, 'নির্বাচন কমিশনের নতুন নিয়ম অনুযায়ী কোনও পুলিস আইডি চেক করতে পারে না, এই লিখিত অর্ডারগুলো সঙ্গে রাখুন।' বিজেপিকে তীব্র আক্রমণের পাশাপাশি মহিলাদের অগ্রাধিকার নিয়ে এদিন ফের সুর চড়িয়েছেন তিনি। সভামঞ্চ থেকেই নেত্রীর ঘোষণা, ' আমি চাই পাড়ায় যাদের ঝগডুটে মহিলা বলা হয় তাঁদের এজেন্ট করে দাও, আমি দেখছি কত বড় সাহস। রাতেও এলাকায় এলাকায় মহিলাদের পাহারা দেওয়ার নিদান দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। 

নন্দীগ্রামে ভোট গ্রহণের শুরুতে একাধিক বুথে এজেন্টই দিতে পারেনি তৃণমূল কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণের শুরুতেই এই অভিযোগ ওঠে। বৃহস্পতিবার নন্দীগ্রামের বয়াল ও গোকুলনগরের বিস্তীর্ণ এলাকায় প্রায় ৮০টি বুথে এজেন্ট দিতে পারেনি তৃণমূল। তৃণমূলের তরফে ভয় দেখানোর অভিযোগ করা হয় বিজেপির বিরুদ্ধে। এর পর দলীয় নেতৃত্ব তৎপর হয়ে বেশ কিছু বুথে এজেন্টের ব্যবস্থা করলেও শেষ পর্যন্ত বেশ কিছু বুথেই বসার মতো তৃণমূলের এজেন্ট মেলেনি। 

তৃণমূলের এজেন্টকে বুথে বসতে দেয়নি বিজেপি, এমনটাই অভিযোগ উঠেছিল নন্দীগ্রামের বয়ালে। অভিযোগ পেয়ে ওই এজেন্টকে নিয়ে আসার জন্য তাঁর বাড়িতে যায় পুলিস ও কেন্দ্রীয় বাহিনী। সব রকমের নিরাপত্তার আশ্বাস দেন তাঁরা। কিন্তু তারপরেও ছেলেকে বুথে যেতে দেননি তাঁর মা। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি নিয়ে খোঁজ নেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। রিপোর্ট তলব করে নির্বাচন কমিশন। সব মিলিয়ে প্রশ্ন ওঠে দলের বিরুদ্ধে তবে বিজেপির ভয়ে বুথে যেতে চাননি এজেন্টরা, এই অভিযোগও তোলে তৃণমূল। আর আজ সেই প্রসঙ্গেই খানাকুল থেকে সুর চড়ালেন মমতা।