আত্মঘাতী ফিদেলপুত্র

কিউবার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, বেশ কয়েক মাস ধরে চিকিত্সা চলছিল বালার্টের।  মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন 'ফিদেলিতো'। বাবার মতো অবিকল দেখতে বলে কিউবার মানুষ তাঁকে এই নামেই ডাকেন।

Updated By: Feb 2, 2018, 01:02 PM IST
আত্মঘাতী ফিদেলপুত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: আত্ম হননের পথ বেছে নিলেন কিউবার প্রয়াত জননায়ক ফিদেল কাস্ত্রোর ছেলে। ৬৮ বছর বয়সী ফিদেল কাস্ত্রো দিয়াজ-বালার্ট বেশ কিছুদিন ধরে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। সে কারণেই আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বালার্ট, প্রাথমিক অনুমান চিকিত্সকের।

আরও পড়ুন- প্রকাশ্য রাস্তায় হিজাব খুলে প্রতিবাদ ইরানের মহিলাদের

কিউবার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, বেশ কয়েক মাস ধরে চিকিত্সা চলছিল বালার্টের।  মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন 'ফিদেলিতো'। বাবার মতো অবিকল দেখতে বলে কিউবার মানুষ তাঁকে এই নামেই ডাকেন। ফিদেল কাস্ত্রোর প্রথম স্ত্রী মির্তা দিয়াজ-বালার্টের সন্তান বালার্টের জন্ম হয় ১৯৪৯ সালে। দীর্ঘ লড়াই করে কিউবার ক্ষমতায় আসার সময় মির্তা দিয়াজের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায় ফিদেলের। পরে মায়ের সঙ্গে মায়ামিতে চলে আসেন বালার্ট।

আরও পড়ুন- মায়ানমারের প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে পেট্রোল বোমা, সুরক্ষিত সু কি

পরবর্তীকালে রাশিয়া (তত্কালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন) থেকে পড়াশুনা করে কিউবায় নিউক্লিয়ার গবেষণা শুরু করেন বালার্ট। ১৯৮০ থেকে ১৯৯২ পর্যন্ত কিউবার ইন্টারন্যাশনাল প্রোগ্রামের প্রধান হিসাবে কাজ করেছেন তিনি। কিন্তু সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে যাওয়ার সময় আর্থিক অনটন শুরু হয় কিউবায়। বন্ধ হয়ে যায় নিউক্লিয়ার গবেষণা। এরপরই বালার্টকে আর প্রকাশ্যে আসতে দেখা যায়নি বলে জানা যায়।

আরও পড়ুন- ব্রিটেনের এই মহিলা পিঠে করে বয়ে বেড়াচ্ছেন নিজের হৃদপিণ্ড

প্রসঙ্গত, ২০১৬-র ২৬ নভেম্বর ৯০ বছর বয়সে মারা যান বালার্টের বাবা তথা কিউবার নায়ক ফিদেল কাস্ত্রো।

আরও পড়ুন- দাভোসে যে সব বিষয়ে দাপিয়ে বেড়ালো ভারত...