ভারতের প্রচেষ্টায় মুগ্ধ বিশ্ব, ইসরোর প্রশংসায় তাবড় দেশ

ইসরোর ভূয়সী প্রশংসায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের তাবড় মহাকাশ সংস্থা।

Updated By: Sep 8, 2019, 07:18 PM IST
ভারতের প্রচেষ্টায় মুগ্ধ বিশ্ব, ইসরোর প্রশংসায় তাবড় দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদন : ইসরোর কঠোর পরিশ্রম ও নিষ্ঠাকে কুর্নিশ করছে বিশ্ব। এত সীমিত বাজেটে ভারতীয় বিজ্ঞানীদের অসাধ্য সাধনের প্রচেষ্টায় মুগ্ধ বিশ্বের বৈজ্ঞানিকমহল।

ইসরো সূত্রে খবর প্রায় ৯৫% সফল চন্দ্রযান-২ অভিযান। ল্যান্ডার বিক্রমের চাঁদের মাটিতে অবতরণের শেষ ধাপে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হলেও সুষ্ঠভাবে কাজ করছে অর্বিটার। ইসরো সূত্রে খবর, প্রায় ৯৫% সফল ইসরোর প্রচেষ্টা। আর সেই কারণেই ইসরোর ভূয়সী প্রশংসায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের তাবড় মহাকাশ সংস্থা। 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

ইসরোর প্রচেষ্টাকে স্বাগত জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দক্ষিণ-মধ্য এশিয়ার কার্যনির্বাহী সহ-সচিব অ্যালিস জি ওয়েলস বলেন, “চন্দ্রযান-২ নিয়ে ইসরোর দুর্ধর্ষ প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানাই। এই মিশন ভারতকে অনেক কদম এগিয়ে রাখবে। চন্দ্রযান যে সব মূল্যবান তথ্য প্রেরণ করবে তা বিজ্ঞানের সাফল্যকে আরও উজ্জ্বল করে তুলবে।”   

ইসরোর প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। নাসা জানায়, মহাকাশ চ্যালেঞ্জিং বিষয়। চাঁদের দক্ষিণ গোলার্ধে চন্দ্রযানের-২-এর এই অভিযানের জন্য ইসোরর প্রশংসা করে নাসা। ইসরোর এই পদক্ষেপে অনুপ্রাণিত হয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বলে জানায় নাসা। ভারতের সঙ্গে ভবিষ্যতে কাজ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে মার্কিন মহাকাশ সংস্থা। এর আগে শুক্রবারই নাসা জানিয়েছে, এই ধরনের অভিযানের ৬০ শতাংশই ব্যর্থ হয়েছে। তাই ভারতের প্রথম প্রচেষ্টায় এতটা সাফল্যে তারা মুগ্ধ।  

 

সংযুক্ত আরব আমিরশাহি

অবতরণের সময়ে বিক্রমের সঙ্গে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছিল সংযুক্ত আরব আমিরশাহির মহাকাশ সংস্থা। ভারতীয় বিজ্ঞানীদের সমর্থন করেছিলেন তাঁরা। মহাকাশবিজ্ঞানের ক্ষেত্রে ভারতকে বুদ্ধিমান খেলোয়াড় বলে অভিহিত করেছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি স্পেস। টুইট করে সংযুক্ত আরব আমিরশাহির মহাকাশ সংস্থা জানায়, বিক্রমের সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার ব্যাপারে আমরা ভারতের পাশে আছি। ভারত আমাদের পার্টনার ও মহাকাশবিজ্ঞানের ক্ষেত্রে এক বুদ্ধিমান খেলোয়াড়। 

 

পাকিস্তান 

অভিযানে প্রত্যাশিত সাফল্য না মেলায় টুইট করে তীব্র কটাক্ষ করেন পাকিস্তানের বিজ্ঞান মন্ত্রী ফাওয়াদ হুসেন।

 

কিন্তু পাকিস্তানের বিজ্ঞান মন্ত্রী যা-ই বলুন না কেন, চন্দ্রযান-২ অভিযানের পর ভারতকে শুভেচ্ছা জানালেন পাকিস্তানের প্রথম মহিলা মহাকাশচারী নামিরা সালিম।

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে চন্দ্রযান-২ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, “চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে ল্যান্ডার বিক্রমের সফট ল্যান্ডিংয়ের ঐতিহাসিক প্রচেষ্টার জন্য আমি ভারত আর ইসরোকে শুভেচ্ছা জানাই।” নামিরা জানান, এই অভিযান হাকাশ গবেষণার ক্ষেত্রে সত্যিই একটা বিড়াট পদক্ষেপ। পাকিস্তানের প্রথম মহিলা মহাকাশচারীর মতে, এই অভিযানে ভারত বা দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়াই নয়, লাভবান হবে গোটা বিশ্ব।

ভুটান

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী প্রশংসা করেছেন ভারতের বিজ্ঞানীদের। টুইট করে তিনি লেখেন, "চন্দ্রযান-২ অভিযানে শেষ মুহূর্তে কিছু বাধা এসেছে। কিন্তু আপনাদের সাহস ও কঠোর পরিশ্রম ঐতিহাসিক।" ভারতের প্রধানমন্ত্রীরও প্রশংসা করেন তিনি।

 

অস্ট্রেলিয়া

ভারতের অভিযানের ভূয়সী প্রশংসা করেছে অস্ট্রেলিয়ার মহাকাশ সংস্থা। অস্ট্রেলিয় মহাকাশ সংস্থা জানায়, চাঁদে নামতে মাত্র কয়েক কিলোমিটার বাকি ছিল ল্যান্ডার বিক্রমের। মহাকাশ অভিযানের ক্ষেত্রে ইসরোর বিজ্ঞানীদের দলের প্রচেষ্টা ও নিষ্ঠাকে আমরা কুর্নিশ জানাই। 

 

ইজরায়েল 

চলতি বছর এপ্রিলে বিক্রমের মতোই অল্পের জন্য ব্যর্থ হয় ইজরায়েলের যান। চাঁদের একদম কাছাকাছি পৌঁছেও ল্যান্ডিংয়ে আসে বাধা। 

ভারতের পাশে দাঁড়ালেন ভারতে ইজরায়েলের রাষ্ট্রদূত রন মলকা। জানালেন, ভারতের গর্ব করা উচিত। সাহস রাখুক ইসরো। এটি একটি বড় সাফল্য। ইজরায়েলেরও এরকম ল্যান্ডিংয়ে বাধার সম্মুখীন হওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে। আমাদের বিশ্বাস ভারত আবার প্রচেষ্টা চালাবে এবং শেষ ধাপে সফল হবে।   

 

মলদ্বীপ

মলদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মহম্মদ সোলিহ টুইট করে শুভেচ্ছাবার্তা দেন। তিনি বলেন, "ইতিহাস তৈরী করেছে ভারত। শেষটা যাই হোক না কেন, চাঁদে যান পৌঁছে দেওয়া কোনও মুখের কথা নয়।" ইসরোর বিজ্ঞানী ও নরেন্দ্র মোদীকেও শুভেচ্ছা জানালেন তিনি। 

 

শ্রীলঙ্কা 

শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি টুইট করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও ইসরোকে শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন, "এটি মোটেও ব্যর্থতা নয়, বরং লক্ষ্যের দিকে আরও একটি সফল ধাপ।"

 

মরিশাস

ভারত সরকার এবং ইসরোকে তাদের প্রচেষ্টার জন্য টুইট করে শুভেচ্ছা জানান মরিশাসের প্রধানমন্ত্রী প্রভিন্দ জুগুনাউথ।