করোনায় মৃত্য়ু হল ভাইরাস বিশেষজ্ঞ ভারতীয় বংশোদ্ভূত গীতার

দক্ষিণ আফ্রিকার মেডিকেল রিসার্চ কাউন্সিলের এইচআইভি প্রিভেনশন রিসার্চের বিভাগীয় অধিকর্তা ছিলেন ৬৪ বছর বয়সী গীতা রামজি

Updated By: Apr 1, 2020, 10:55 AM IST
করোনায় মৃত্য়ু হল ভাইরাস বিশেষজ্ঞ ভারতীয় বংশোদ্ভূত গীতার
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন : কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল ভাইরাস বিশেষজ্ঞ গীতা রামজি। ভারতীয় বংশোদ্ভূত রামজির মৃত্য়ু হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকায়। কিছুদিন আগে লন্ডন থেকে ফেরেন। কোভিড-১৯ পজেটিভ পাওয়া যায় তাঁর শরীরে। এ নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় মৃত্যুর সংখ্য়া দাঁড়াল ৫।

দক্ষিণ আফ্রিকার মেডিকেল রিসার্চ কাউন্সিলের এইচআইভি প্রিভেনশন রিসার্চের বিভাগীয় অধিকর্তা ছিলেন ৬৪ বছর বয়সী গীতা রামজি। ওই সংস্থার সিইও গ্লেনডা গ্রে জানিয়েছেন, প্রফেসর রামজির মৃত্য়ুতে তাঁরা শোকাহত। কোভিড-১৯ উপর্সগ নিয়ে কয়েকদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি হন। 

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালে HIV নিয়ে গবেষণায় নতুন দিশা দেখান গীতা রামজি। এই কৃতিত্বের জন্য লিসবনের প্রথম মহিলা এইচআইভি গবেষক হিসাবে তাঁকে জীবনকৃতি সম্মান দেয় ইউরোপিয়ান ডেভালপমেন্ট ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালস পার্টনারশিপ (ইডিসিটিপি)। .

আরও পড়ুন- নিজামুদ্দিনে দায়িত্বজ্ঞানহীন তবলিঘি জামাত, প্রশ্নের মুখে প্রশাসনের ভূমিকাও

দক্ষিণ আফ্রিকায় মহিলাদের এইডস সচেতনতা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করেছেন। তাঁর কথায়, 'HIV-র মতো মহামরাী থেকে বাঁচতে বিশ্বকে প্রত্যয়ের সঙ্গে লড়তে হবে।' HIV গবেষণায় ল্যান্ডমার্ক তৈরি করেছিলেন গীতা। কিন্তু তাঁর লড়াই থামিয়ে দিল করোনাভাইরাস।  

রবিবার পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকায় মৃত্যু হয়েছে ৫জনের। আক্রান্ত ১৩৫০ জন। মঙ্গলবার দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার ঘোষণা করে, ১০ হাজারের এক দল তৈরি করা হচ্ছে। যাঁরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে করোনা পরীক্ষা করবে। উল্লেখ্য দক্ষিণ আফ্রিকায় ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।