আক্রান্ত ৫ লক্ষেরও বেশি, মৃত ২৩ হাজার, তবুও আংশিক লকডাউন তোলার পরিকল্পনায় ট্রাম্প প্রশাসন

মার্কিন প্রশাসনের শেষ ঘোষণা অনুযায়ী চলতি মাসের শেষ, অর্থাত্ ৩০ মে পর্যন্ত সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশ কার্যকর হবে

Updated By: Apr 14, 2020, 06:27 PM IST
আক্রান্ত ৫ লক্ষেরও বেশি, মৃত ২৩ হাজার, তবুও আংশিক লকডাউন তোলার পরিকল্পনায় ট্রাম্প প্রশাসন
ছবি- টুইটার

নিজস্ব প্রতিবেদন : খুব দ্রুতই পুনরায় সচল হয়ে যাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আগামী মাস থেকেই শিথিল করা হতে পারে আংশিক লকডাউন। আর তা সবাই মানতে বাধ্য। সোমবার হোয়াইট হাউজে সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটাই ঘোষণা করলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আংশিক লকডাউন করা স্টেটগুলিও প্রেসিডেন্ট হিসাবে তাঁর এই ঘোষণা মানতে সাংবিধানিকভাবে বাধ্য বলে দাবি ট্রাম্পের। আগামী মাসের প্রথম দিন, অর্থাত্ ১ মে থেকেই ধীরে ধীরে অর্থনৈতিক প্রেক্ষাপট স্বাভাবিক পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা চলছে। অর্থাত্ ধাপে ধাপে লঘু করা হতে পারে দোকান, ব্যবসা, অফিস বন্ধের নিষেধাজ্ঞা। সোমবার এমনটাই জানিয়েছে ট্রাম্পের প্রশাসন। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতিতে তা কতটা বাস্তবসম্মত ও উচিত সিদ্ধান্ত তাই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিরোধীরা।

মার্কিন প্রশাসনের শেষ ঘোষণা অনুযায়ী চলতি মাসের শেষ, অর্থাত্ ৩০ মে পর্যন্ত সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশ কার্যকর হবে। এখনও পর্যন্ত ট্রাম্প প্রশাসনের তরফে সেই সময়সীমা বৃদ্ধির কোনও লক্ষণ দেখা যায়নি। উল্টে আগামী মাসের শুরু থেকেই লঘু করা হতে পারে এই নিষেধাজ্ঞা।

আরও পড়ুন- 'কাঁদো দেশবাসী কাঁদো', প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ দিশাহীন বলে কটাক্ষ চিদমম্বরদের

এই মুহূর্তে করোনাভাইরাস আক্রান্তের তালিকায় বিশ্বে এক নম্বর স্থানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দেশের প্রায় ৫ লক্ষ ৮৭ হাজার মানুষ  করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। প্রাণ হারিয়েছেন ২৩ হাজারেরও বেশি মানুষ। বিশেষজ্ঞদের মতে এখনও চরম পর্যায়ে পৌঁছয়নি করোনাভাইরাস সংক্রমণের রেখাচিত্র। নিউ ইয়র্ক, নিউ জার্সির মতো স্থানে হাসপাতালগুলিতে স্থানাভাবে রাস্তায়, পার্কে তাঁবু করে রোগীদের আইসোলেশনের ব্যবস্থা করতে হচ্ছে। এমন অবস্থায় করোনাভাইরাস মোকাবিলাকে প্রাধান্য না দিয়ে দোকান-ব্যবসা চালু করার ভাবনা কতটা যুক্তিযত, তাই নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।

শুরু থেকে করোনাভাইরাসকে লঘুভাবে দেখেছে ট্রাম্প প্রশাসন বলে অভিযোগ। আর তার ফলেই এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে সংক্রমণ ও প্রাণহানি। সে দেশের একাধিক সংবাদসংস্থা বারবার এমনই অভিযোগ তুলেছে। আর তা নিয়ে সোমবার নিজের বিরক্তি প্রকাশ করেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, "এটা সংবাদমাধ্যমের অপপ্রচার। ট্রাম্প সরকার শুরু থেকেই যথেষ্ট পদক্ষেপ নিয়েছে।" এর পর তিনি করোনা মোকাবিলায় ট্রাম্প সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের ছবি প্রেজেন্টেশনের আকারে তুলে ধরেন।

এর পরে এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, "কোনও স্টেটের গভর্নর যদি আপনার প্রশাসনের নির্দেশ মেনে আংশিক লকডাউন তুলতে না চান?" তার উত্তরে ট্রাম্প বলেন, "আমাদের সংবিধানে প্রেসিডেন্টই সিদ্ধান্ত নেন। তাঁদের মানতে হবে।"