দোরগোড়ায় ভোট, মিটিং, মিছিল, কর্মিসভায় ভোট প্রচারে ব্যস্ত সবপক্ষ

ভোট দোরগোড়ায়। তাই প্রচারে কোনও ফাঁক রাখতে নারাজ শাসক-বিরোধী সব পক্ষ। মিটিং-মিছিল-কর্মিসভা, সবই চলছে জোরকদমে। জনসংযোগের ওপর সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন প্রার্থীরা। প্রচারে ব্যস্ত বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের বাম প্রার্থী বাসুদেব আচারিয়া। তবে বড় জনসভা কিংবা মিছিল নয়, বরং তিনি চষে বেড়াচ্ছেন একের পর এক গ্রাম। তাঁর প্রচারে সবচেয়ে গুরুত্ব পাচ্ছে জনসংযোগ। চলছে পাড়ায় পাড়ায় ছোটখাটো বৈঠক ও কর্মিসভা।

Updated By: Mar 27, 2014, 03:02 PM IST

ভোট দোরগোড়ায়। তাই প্রচারে কোনও ফাঁক রাখতে নারাজ শাসক-বিরোধী সব পক্ষ। মিটিং-মিছিল-কর্মিসভা, সবই চলছে জোরকদমে। জনসংযোগের ওপর সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন প্রার্থীরা। প্রচারে ব্যস্ত বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের বাম প্রার্থী বাসুদেব আচারিয়া। তবে বড় জনসভা কিংবা মিছিল নয়, বরং তিনি চষে বেড়াচ্ছেন একের পর এক গ্রাম। তাঁর প্রচারে সবচেয়ে গুরুত্ব পাচ্ছে জনসংযোগ। চলছে পাড়ায় পাড়ায় ছোটখাটো বৈঠক ও কর্মিসভা।

বাম, তৃণমূল, বিজেপি ও কংগ্রেস-- এই কেন্দ্রে লড়াইটা এবার চতুর্মুখী। তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মুনমুন সেন ইতিমধ্যে একটি বড়সড় কর্মিসভা করেছেন। বাঁকুড়া জেলারই বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী সৌমিত্র খাঁ-এর সমর্থনে প্রচারে ব্যস্ত দলের মহিলা ব্রিগেড। কাঁধে দলীয় পতাকা নিয়ে বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার করছেন তাঁরা। নিজেরাই করছেন দেওয়াল লেখার কাজও।

শুধু লোকসভার লড়াই নয়, নদিয়ার চাকদহ তেতে উঠেছে বিধানসভা ভোট ঘিরেও। বিধায়ক মারা যাওয়ায় এই অকাল ভোট। গতবার তৃণমূল প্রার্থীর কাছে তেরো হাজারের কিছু বেশি ভোটে হেরেছিলেন বামফ্রন্টের বিশ্বনাথ গুপ্ত। এবারেও তিনিই চাকদহ বিধানসভার লড়াইয়ে বামেদের প্রার্থী। তৃণমূল প্রার্থী করেছে রত্না ঘোষকে।

অন্যদিকে, কংগ্রেস গতবার প্রার্থী না দিলেও এবার লড়াইয়ে নামছে তারাও। প্রার্থী হয়েছেন সমরলাল সিংহ।

মেদিনীপুরে জমে উঠেছে ভোটের প্রচার। বুধবার নারায়নগড় সংলগ্ন অঞ্চলে প্রচার করেন বাম প্রার্থী প্রবোধ পণ্ডা। প্রচারে জোর দেওয়া হয় মহিলাদের নিরাপত্তা ইস্যুতে। প্রার্থীর অভিযোগ, সন্ত্রাস করে ভোটে জিততে চাইছে শাসক দল।

কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রের সিপিআইএম প্রার্থী তাপস সিনহার বুধবারের প্রচার কর্মসূচিতে ছিল রোড শো এবং মিছিল। তবে শুধু মঞ্চে বক্তৃতা নয়, পথে নেমে সাধারণ মানুষজনের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের অভাব-অভিযোগ শুনতে দেখা যায় প্রার্থীকে।

পায়ে হেঁটে প্রচারই সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন বর্ধমান-দুর্গাপুর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দেবশ্রী চৌধুরী। বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার করতে দেখা গেল তাঁকেও। একবার ভোটে জিতলে নেতাদের আর দেখা মেলে না। তিনি অন্তত কোনওদিন এই অভিযোগ মাথা চাড়া দিতে দেবেন না। দাবি করেছেন প্রার্থী।