ছেলের সঙ্গে বিন্দাস মুডে এভাবেই সময় কাটাচ্ছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ছেলের সঙ্গে বিন্দাস মুডে এভাবেই সময় কাটাচ্ছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো

কখনও জিমে ছবি তোলা তো কখনও মাঠে একসঙ্গে অনুশীলন করা। ছেলের সঙ্গে বিন্দাস মুডে এভাবেই সময় কাটাচ্ছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। কয়েকদিন আগে মাঠে জুনিয়র রোনাল্ডোকে ফ্রিকিক কিভাবে মারতে হয়ে সেটা শেখাচ্ছিলেন সিআর সেভেন। এমনকি নিজে না মেরে ছেলেকে কয়েকটা শট মারতে দেন পর্তুগিজ তারকা। ফ্রিকিক মারার ফাঁকেই বাবা-ছেলে জুটিকে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতেও দেখা যায়। বাবার সামনে ফুটবলের প্রাথমিক পাঠ শিখতে পেরে উচ্ছ্বসিত জুনিয়র রোনাল্ডো। বাবা-ছেলের যুগলবন্দীর এই ভিডিও পোস্ট হওয়ার পর আলোড়ন ছড়িয়ে পড়ে। টুইটের মাধ্যমে  রোনাল্ডো জানিয়েছেন ছেলের সঙ্গে সময় কাটিয়ে বলে শট মারার থেকে ভাল কিছু  হয় না।

রোনাল্ডোকে কোনও মতেই ছাড়া হবে না, জানিয়ে দিলেন জিদান রোনাল্ডোকে কোনও মতেই ছাড়া হবে না, জানিয়ে দিলেন জিদান

দলের সেরা অস্ত্র ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে কোনও মতেই ছাড়া হবে না। পরিস্কার জানিয়ে দিলেন রিয়াল মাদ্রিদের নতুন কোচ জিনেদিন জিদান। তিনি যতদিন রিয়ালের হটসিটে থাকবেন ততদিন সিআর সেভেনের ক্লাব ছাড়ার প্রশ্নই নেই। সাফ বক্তব্য জিদানের। রিয়াল মাদ্রিদে থাকা নিয়ে অতীতে বারবার অনিশ্চয়তা প্রকাশ করেছেন পর্তুগিজ তারকা। প্রাক্তন কোচ রাফা বেনিতেজের সঙ্গে রোনাল্ডোর বিরোধ চরমে ওঠে। রিয়ালে যে তিনি ভাল নেই, সেটা বুঝিয়ে দেন সিআর সেভেন। কোচ বদলের পর রোনাল্ডোকে নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করে দিলেন জিদান। অনিশ্চয়তার মেঘ দুরে সরিয়ে রোনাল্ডোকে নিজের পছন্দের পজিশনে খোলা মনে খেলতে দিতে চান রিয়ালের নতুন কোচ। শনিবার রাতে লা লিগার ম্যাচে প্রথমবার কোচ হিসেবে রিয়ালের বেঞ্চে বসবেন জিদান।

সমালোচকদের একহাত নিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো সমালোচকদের একহাত নিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো

সমালোচকদের একহাত নিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। নীরবতা ভেঙে দীর্ঘ সময়ের পর মুখ খুললেন সিআর সেভেন। আর মুখ খুলতেই পর্তুগিজ তারকা যেন অ্যাংরি ইয়াং ম্যান। ফুটবল কেরিয়ারে তার সাফল্যকে ঈর্ষা করেন অনেকেই। তাই তাকে নিয়ে বারবার কথা হয়।সমালোচকদের এভাবেই তোপ দাগলেন রোনাল্ডো। তিনি জন্মেছেন সেরা হওয়ার জন্য। কয়েকজনের মন্তব্য তার খেলার ওপর প্রভাব ফেলতে পারবে না। একই সঙ্গে একজন ফুটবলারের পক্ষে সবাইকে খুশি করা সম্ভব নয়, সাফ কথা রিয়াল মাদ্রিদের এক নম্বর তারকার। শেষ বছরে ইউরোপে সবচেয়ে বেশি গোল করে মেসিকে পিছয়ে ফেলে দিয়েছেন রোনাল্ডো। ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলারের মুকুটও পর্তুগিজ তারকার মাথায়। এরপরও রিয়াল মাদ্রিদে সিআর সেফেনকে নিয়ে জল্পনা দীর্ঘ সময় ধরেই। তার জেরেই হয়তো রোনাল্ডোর এই ধরণের মন্তব্য। একই সঙ্গে অবসর নেওয়ার পর রাজার মতো তিনি থাকতে চান বলে জানিয়েছেন সিআর সেভেন।