রিয়াকে পালাতে সাহায্য? ভুয়ো খবরের জেরে ইউটিউবারের বিরুদ্ধে ৫০০ কোটির মানহানির মামলা অক্ষয়ের

মিথ্যে খবর ছড়িয়ে কয়েক লক্ষ রোজগার করেন রশিদ সিদ্দিকি নামে ওই ইউটিউবার 

Edited By: জয়িতা বসু | Updated By: Nov 19, 2020, 12:30 PM IST
রিয়াকে পালাতে সাহায্য? ভুয়ো খবরের জেরে ইউটিউবারের বিরুদ্ধে ৫০০ কোটির মানহানির মামলা অক্ষয়ের
ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন : ​ইউটিউবার রশিদ সিদ্দিকির বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করলেন অক্ষয় কুমার। মিথ্যে খবর ছড়িয়ে ভাবমূর্তি নষ্ট করার অভিযোগেই রশিদ সিদ্দিকি নামে ওই ইউটিউবারের বিরুদ্ধে ৫০০ কোটির মানহানির মামলা দায়ের করেন আক্কি। 

আরও পড়ুন  আজাদের সঙ্গে দীপাবলির উৎসবে মাতলেন ইরা খান, ছবি শেয়ার করলেন আমির-কন্যা

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর রশিদ সিদ্দিকি লাগাতার তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে মিথ্যে খবর ছড়াতে শুরু করেন বলে অভিযোগ।  রশিদ দাবি করেন, সুশান্তর মৃত্যুর পর রিয়া চক্রবর্তীকে কানাডায় পালিয়ে যেতে সাহায্য করেন অক্ষয় কুমার।  রশিদের ওই ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসতেই তাঁর বিরুদ্ধে ভুয়ো খবর ছড়ানো অভিযোগ করেন অক্ষয়।  পাশাপাশি রসিদের বিরুদ্ধে ৫০০ কোটির মানহানির মামলাও দায়ের করেন আক্কি।

আরও পড়ুন : শেষ পর্যন্ত মানালি ছাড়তে হল কঙ্গনা রানাউতকে?

প্রসঙ্গত, এম এস ধোনির বায়োপিকে সুশান্তের অভিনয় মেনে নিতে পারেননি অক্ষয়।  সেই কারণেই এসএসআরের মৃত্যুর পর অক্ষয় রিয়াকে কানাডায় পালিয়ে যেতে সাহায্য করেন বলে রশিদ মিথ্যে খবর ছড়ান বলে অভিযোগ। 

অক্ষয় কুমারের পাশাপাশি শিবসেনাও রশিদ সিদ্দিকির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। সুশান্তের মৃত্যুর পর উদ্ধব ঠাকরে এবং আদিত্য ঠাকরের সম্পর্কে আপত্তিজনক মন্তব্যের অভিযোগ ওঠে রশিদের বিরুদ্ধে।  এরপরই ওই ইউটিউবারের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে শিবসেনা। 

আরও পড়ুন : করোনা ভাইরাস হানা দিল সলমনের 'গ্যালাক্সিতে'? নিজেকে গৃহবন্দি করলেন বলিউড 'ভাইজান'

জানা যাচ্ছে, এফএফ নিউজ নামে রশিদ সিদ্দিকের একটি ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে। এসএসআরের মৃত্যুর পর ওই ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে খবর প্রকাশ করে ৪ মাসে ১৫ লক্ষ রোজগার করেন। শুধু তাই নয়, অগাস্ট থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে লাগাতার বিভিন্ন খবর প্রকাশ করে নিজের ইউটিউব চ্যানেলের  ভিউয়ার্স ১ লক্ষ থেকে ৩.৭০ লক্ষে নিয়ে গিয়েছেন রশিদ। যার জেরে কয়েকটি মাত্র ভিডিয়োর দৌলতে রশিদ সাড়ে ৬ লক্ষেরও বেশি অর্থ কয়েকদিনের মধ্যে রোজগার করে ফেলেন বলে খবর।