close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

কৃষ্ণসার হত্যা মামলায় সইফ, সোনালি, তাব্বু, নীলম, দুষ্মন্ত সিংকে ফের নোটিস আদালতের

 আগামী ৮ সপ্তাহ পর এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

Updated: May 20, 2019, 06:56 PM IST
কৃষ্ণসার হত্যা মামলায় সইফ, সোনালি, তাব্বু, নীলম, দুষ্মন্ত সিংকে ফের নোটিস আদালতের

নিজস্ব প্রতিবেদন: কৃষ্ণসার হত্যা মামলায় ফের বিপাকে সইফ, তাব্বু ও সোনালিরা, নীলম ও দুষ্মন্ত সিং। জানা যাচ্ছে, এই মামলায় রাজস্থান হাইকোর্টের বিচারপতি মনোজ গর্গের নেতৃত্বাধীন যোধপুর বেঞ্চ কৃষ্ণসার হত্যা মামলায় এই তারকাদের কাছে নতুন করে নোটিস পাঠিয়েছেন। আগামী ৮ সপ্তাহ পর এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

যদিও গতবছর ৫ এপ্রিল সিজেএম আদালত এই মামলায় সোনালি, তাব্বু, সইফ, নীলম ও দুষ্মন্ত সিংকে বেকসুর খালাস করে দেয়। এই মামলায় একমাত্র দোষী সাব্যস্ত হন সলমন খান। তাঁকে ৫ বছর কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানার নির্দেশ দেয় আদালত। যদিও এক্ষেত্রে সলমন ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে ছাড়া পেয়ে যান। তবে  সিজেএম আদালতের সোনালি, তাব্বু, সইফ, নীলম ও দুষ্মন্ত সিংকে বেকসুর খালাস করে দেওয়ার রায়ের বিরুদ্ধে ফের রাজস্থান হাইকোর্টে আবেদন করে রাজস্থান সরকার। সেই আবেদনের ভিত্তিতেই নতুন করে এই মামলায় 'হাম সাথ সাথ হ্যায়' অভিনেতা-অভিনেত্রীদের কাছে নোটিস পাঠিয়েছে রাজস্থান হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন-শহুরে জীবন ছেড়ে নাগা সাধুর বেশ ধরলেন সইফ আলি খান!

১৯৯৮ সালে 'হাম সাথ সাথ হ্যায়' ছবির শ্যুটিংয়ের সময় বিরল প্রজাতির এই কৃষ্ণসার হরিণ মারার অভিযোগ ওঠে সলমন খান, সইফ আলি খান, তাব্বু, সোনালি বেন্দ্রে, নীলম ও দুষ্মন্ত সিংয়ের বিরুদ্ধে।  তবে এই মামলায় মূল অভিযুক্ত সলমনই ছিলেন বলে জানা যায়। রাজস্থানের বিশনোই সম্প্রদায় সলমনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। 

আরও পড়ুন-এক্সিট পোলের সঙ্গে ঐশ্বর্যর পুরনো সম্পর্কের তুলনা, আক্রমণের মুখে বিবেক ওবেরয়