৫০টি সিমকার্ড বদল! একাধিক নম্বরের একটিও সুশান্তের নিজের নামে নেই, জানাল বিহার পুলিস

 সুশান্ত যতগুলি ফোন নম্বর ব্যবহার করতেন, তার মধ্যে একটি রুমমেট সিদ্ধার্থ পাঠানির নামে রেজিস্টার করা।

Edited By: রণিতা গোস্বামী | Updated By: Aug 2, 2020, 06:21 PM IST
৫০টি সিমকার্ড বদল! একাধিক নম্বরের একটিও সুশান্তের নিজের নামে নেই, জানাল বিহার পুলিস

নিজস্ব প্রতিবেদন : সুশান্ত মামলায় আগেই উঠে এসেছে অভিনেতার একাধিকবার ফোন নম্বর বদলানোর কথা। তবে এখন তদন্তে বিহার পুলিস জানতে পেরেছে, সুশান্তের একটা সিমকার্ডও তাঁর নামে রেজিস্টার ছিল না। জানা যাচ্ছে, সুশান্ত যতগুলি ফোন নম্বর ব্যবহার করতেন, তার মধ্যে একটি রুমমেট সিদ্ধার্থ পাঠানির নামে রেজিস্টার করা।

বিহার পুলিসের তরফে এবিষয়ে জানানো হয়, ''সুশান্তের একাধিক ফোন নম্বরের একটিও তাঁর নিজের নামে রেজিস্টার করা নেই। এখন আমরা ওই নম্বরগুলি থেকে কল ডিটেলস খতিয়ে দেখতে চাই। ইতিমধ্যেই এই কাজ আমরা শুরু করে দিয়েছি।'' প্রসঙ্গত, সুশান্তের ব্যবহৃত সিমকার্ডগুলির মধ্যে একটি যে তাঁর নামে ছিল, সেকথা সম্প্রতি Zee News-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে স্বীকারও করে নেন সিদ্ধার্থ পিঠানি। তাঁর কথায়, সুশান্ত তাঁকে ফোন নম্বর তুলে দিতে বলেছিল বলেই উনি তাঁকে একটি নম্বর তুলে দিয়েছিলেন। জানা যায়, সুশান্ত প্রায় ৫০টি সিমকার্ড বদলেছিলেন।

আরও পড়ুন-তেলেঙ্গানার তিন অনাথ শিশুর দায়িত্ব নিলেন সোনুু সুদ

বিহার পুলিসের তরফে আরও জানানো হয়েছে, ''গত ৮ জুন মৃত্যু হয় সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ানের। এবিষয়ে আমরা দিশার পরিবারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চাই। যদিও আমরা এখনও পর্যন্ত দিশার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে উঠতে পারিনি। তবে খুব শীঘ্রই জিজ্ঞাসাবাদ করব।''

এদিকে সুশান্ত মামলায় সম্প্রতি CBI তদন্তের দাবি জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আর কে সিং। তাঁর কথায়, ''সুশান্ত মামলায় মুম্বই পুলিস কোনও কাজই করেনি। তাঁরা খালি তদন্তের নামে নিজেদের প্রচার করে গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত FIR ও হয়নি। তাই এই মামলায় CBI তদন্ত হওয়া উচিত। মানুষও তাই চাইছে।''

এদিকে এই মামলায় ইতিমধ্যেই রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের মামলা দায়ের করেছে ইডি।

আরও পড়ুন-বড় স্যুটকেস নিয়ে রাতেই চলে যায় রিয়া ও তাঁর পরিবার, জানাচ্ছেন বিল্ডিংয়ের সুপারভাইজার