আপনি কি লাইট সিগারেট খান, যাতে ক্যানসারের কবলে না পড়েন? ভুল করছেন

তামাক, সিগারেট এগুলো আমাদের স্বাস্থের পক্ষে কতটা ক্ষতিকর, তা এখন গোটা বিশ্বের সব মানুষই জানেন প্রায়। দেশের সরকার থেকে শুরু করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সচেতন করে যাচ্ছে সবসময়। কিন্তু মানুষের যে তামাকে অনাসক্তি নেই একেবারেই। আমেরিকাতেই তো প্রতিবছর ধূমপানের কারণেই মারা যান ৪ লক্ষ ৮০ হাজার মানুষ। অথবা, বলা যায়, এভাবেও। প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন মারা যান ধূমপানের কারণেই। বেশিরভাগই ক্যানসারের কবলে পড়ে। আর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংখ্যার রিপোর্ট জানলে তো চোখ কপালে উঠবেই। হু-এর মতে প্রতিবছর গোটা বিশ্বে প্রায় ৫০ লক্ষ মানুষ মারা যান ধূমপানের কারণে। এঁদের মধ্যে পঞ্চাশ লক্ষ মানুষ নিজেরাই ধূমপান করেন। আর ১০ লক্ষ মানুষ এইসব ধূমপায়ীদের আশে পাশে থাকার জন্যও ধীরে ধীরে ঢলে পড়েন মৃত্যুর মুখে।

Updated By: May 23, 2017, 01:42 PM IST
 আপনি কি লাইট সিগারেট খান, যাতে ক্যানসারের কবলে না পড়েন? ভুল করছেন

ওয়েব ডেস্ক: তামাক, সিগারেট এগুলো আমাদের স্বাস্থের পক্ষে কতটা ক্ষতিকর, তা এখন গোটা বিশ্বের সব মানুষই জানেন প্রায়। দেশের সরকার থেকে শুরু করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সচেতন করে যাচ্ছে সবসময়। কিন্তু মানুষের যে তামাকে অনাসক্তি নেই একেবারেই। আমেরিকাতেই তো প্রতিবছর ধূমপানের কারণেই মারা যান ৪ লক্ষ ৮০ হাজার মানুষ। অথবা, বলা যায়, এভাবেও। প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন মারা যান ধূমপানের কারণেই। বেশিরভাগই ক্যানসারের কবলে পড়ে। আর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংখ্যার রিপোর্ট জানলে তো চোখ কপালে উঠবেই। হু-এর মতে প্রতিবছর গোটা বিশ্বে প্রায় ৫০ লক্ষ মানুষ মারা যান ধূমপানের কারণে। এঁদের মধ্যে পঞ্চাশ লক্ষ মানুষ নিজেরাই ধূমপান করেন। আর ১০ লক্ষ মানুষ এইসব ধূমপায়ীদের আশে পাশে থাকার জন্যও ধীরে ধীরে ঢলে পড়েন মৃত্যুর মুখে।

আরও পড়ুন বায়ুদূষণের প্রকোপেই হয়তো ঘুম কম হচ্ছে আপনার

এইসব কারণেই হোক অথবা অন্য কোনও কারণে, সিগারেট প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলোও তাই নিজেদের পন্য বাজারে বিক্রি করার জন্য নানারকম নাম দেয় অথবা বিজ্ঞাপনের ভেল্কি দেখায়। তাই আমরা দেখতে পারি, বিভিন্ন সিগারেটের প্যাকেটে লেখা থাকে 'লাইট'। অর্থাত্, ওই সিগারেটে নিকোটিনের মাত্রা কম রয়েছে। তাই ওই লাইট সিগারেট খেলে, শরীরে তেমন কোনও ক্ষতি হবে না। আপনিও হয়তো এই আশ্বাস পেয়েই লাইট সিগারেট খান। কিন্তু গবেষকরা বলছেন, বিষয়টা একদমই তা নয়। সিগারেটের বিভাগের নাম হতে পারে লাইট। কিন্তু এটা আপনাকে ক্ষতির মুখে মোটেও হালকাভাবে ঠেলে দেবে না। বরং, আপনি লাইট সিগারেট খেলেও পড়তে পারেন ফুসফুসের ক্যানসারের কবলে। তাই লাইট সিগারেট খেয়ে রোগমুক্ত হওয়ার ভাবনা ছাড়ুন। বরং, ছেড়ে দেওয়ার চেষ্টা করুন সিগারেটটাই।

আরও পড়ুন  জিম-যোগাসনেও কমছে না ভুঁড়ি? জানুন কী করবেন