কুঁদঘাটের ম্যানহোলে কাজ করতে ঢুকলেন ৭, ফিরলেন না ৪ জন

উদ্ধারকার্যে নামেন দমকল কর্মীরা। উদ্ধার করতে  রীতিমতো বেগ পেতে হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ৭ জনকে উদ্ধার করা হয়।

Updated By: Feb 25, 2021, 10:12 PM IST
কুঁদঘাটের ম্যানহোলে কাজ করতে ঢুকলেন ৭, ফিরলেন না ৪ জন

নিজস্ব প্রতিবেদন: কুঁদঘাট ম্যানহোলে বড়সড় দুর্ঘটনা।  নেমেছিলেন ৭ শ্রমিক, ফিরলেন না ৪ জন। ম্যানহোল থেকে উদ্ধার করার পর তাঁদের নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএম ও  বাঘাযতীন হাসপাতালে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁদের ভর্তি করা হয়েছিল। চিকিৎসকরা চার জনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। বাকি তিন জনের চিকিৎসা চলছে। 

প্রসঙ্গত, ১১৪ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় KEIIP- র কাজ চলছিল। এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্কের টাকায় ওই নিকাশি নালার কাজ চলছিল। সেখানে পুরনো নিকাশি নালার সঙ্গে নতুন নিকাশি নালার সংযুক্তিকরণের কাজ হচ্ছিল। নিয়ম অনুযায়ী, অন্য নালা থেকে ওই নালায় জল আসা বন্ধ থাকার কথা। কিন্তু, আশপাশের নালায় 'লিকেজ' থাকার দরুণ ও নিকাশির জলপ্রবাহ বন্ধ না থাকায় ওই স্থলে নোংরা জল ঢুকে যায়। বেশ কিছু দিন ধরে সেই জল ঢুকে জমেছিল। জল জমে থাকার দরুণ ওই ম্যানহোলে বিষাক্ত গ্যাস তৈরি হয়। প্রায় ৫ ফুটের উপর জল জমে গিয়েছিল। ওই জলেই পা পিছলে ডুবে যান শ্রমিকরা। এরপর ওই বিষাক্ত গ্যাসে দমবন্ধ হয়ে মর্মান্তিক পরিণতি ঘটে। একইসঙ্গে আরও জানা গিয়েছে, এই শ্রমিকদের কোমরে নিয়ম মত দড়ি বাঁধাও ছিল না। এই শ্রমিকদের প্রত্যেকেই একটি ঠিকা সংস্থার চুক্তিভিত্তিক কর্মী বলে জানা গিয়েছে।

 

প্রায় ২ ঘন্টা ভিতরে জলের মধ্যে আটকে ছিলেন তাঁরা। প্রথম অবস্থায় দমকল আসলেও তাদেরকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি, স্থানীয়দের চেষ্টাতেও ব্যর্থ হতে হয়। এরপর খবর দেওয়া হয় ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টকে। ঘটনাস্থলে পৌঁছান অরূপ বিশ্বাস। ডুবুরি নামিয়ে ৭ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়। দুজনকে এসএসকেএম হাসপাতালে এবং দুজনকে বাঘাযতীন হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। সেই ৪ জনকেই মৃত বলে ঘোষণা করেন  চিকিৎসক।