Sourav-কে দেখতে এসে 'বহিরাগত' ইস্যুতে তোপ দাগলেন Anurag Thakur

 "ভারত সরকারের কোনও মন্ত্রীর পশ্চিমবঙ্গে আসা কি কোনও অপরাধ? ভারতের কোনও মন্ত্রী কি পশ্চিমবঙ্গে আসতে পারবে না?" 

Reported By: সৌমেন ভট্টাচার্য্য | Updated By: Jan 4, 2021, 01:00 PM IST
Sourav-কে দেখতে এসে 'বহিরাগত' ইস্যুতে তোপ দাগলেন Anurag Thakur
নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন : সৌরভ (Sourav Ganguly) অনুরাগী তিনি। তিনি নিজেও একসময় বিসিসিআই-এর সভাপতি ছিলেন। এখন বর্তমান সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি হৃদরোগে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। তাঁকে দেখতে তাই কলকাতায় ছুটে এলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর (Anurag Thakur)। আজ সকালেই কলকাতায় এসে পৌঁছেছেন অনুরাগ ঠাকুর। কলকাতায় পা দিয়েই 'বহিরাগত' ইস্যুতে তোপ দাগলেন Anurag Thakur।

উডল্যান্ডস হাসপাতালে চিকিত্সাধীন BCCI প্রেসিডেন্টকে দেখতে যাবেন তিনি। প্রসঙ্গত শনিবার বাড়িতেই হৃদরোগে অসুস্থ হয়ে পড়েন সৌরভ (Sourav Ganguly)। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সৌরভের হার্টের ৩টি ধমনীতে ব্লকেজ পাওয়া গিয়েছে। ইতিমধ্যেই একটি স্টেন্ট বসেছে। আগামিকাল সৌরভকে দেখতে আসছেন বিশিষ্ট কার্ডিয়াক সার্জেন দেবী শেট্টি ও তাঁর টিম। এখনই সৌরভের বাইপাসের কোনও প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন চিকিত্সকরা।  

ক্রীড়ামহলে সৌরভ অনুরাগী বলে পরিচিত অনুরাগ ঠাকুর (Anurag Thakur) গতকালই তাঁর স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নিয়েছিলেন। এরপরই আজ তাঁকে দেখতে কলকাতা সফরে এলেন অনুরাগ ঠাকুর। তবে এদিন দমদম বিমানবন্দরে পা দিয়েই অবশ্য 'বহিরাগত' ইস্যুতে রাজ্য সরকারকে নিশানা করলেন তিনি। তাঁর স্পষ্ট কথা, "ভারত সরকারের কোনও মন্ত্রীর পশ্চিমবঙ্গে আসা ক্ষেত্রে যদি কেউ বলে বাইরে থেকে এসেছে, তাদেরকে আমি জিজ্ঞেস করব, কারা আসলে বলবেন যে এখানকার লোক? ভারত সরকারের কোনও মন্ত্রীর পশ্চিমবঙ্গে আসা কি কোনও অপরাধ? ভারতের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোক এসে পশ্চিমবঙ্গকে দাঁড় করানোর চেষ্টা করেছেন, তাহলে কি ওটা অপরাধ? ভারতের কোনও মন্ত্রী কি পশ্চিমবঙ্গে আসতে পারবে না?" 

আরও বলেন, "এখানে আসার সবার অধিকার আছে। পশ্চিমবঙ্গের মাটি ডাক্তার শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জির মাটি। কলকাতা থেকে কাশ্মীর, একটা দেশে দুটো নিশান দুটো প্রধান থাকতে পারবে না বলেছিলেন ড. শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জি। কলকাতা থেকে কাশ্মীর গিয়ে এই আওয়াজ তুলেছিলেন তিনি। কিন্তু আজ কলকাতাতেই এই সমস্ত কথা বলছেন! বাইরে থেকে এসেছে! এই সমস্ত কথা বলার আগে একবার ভেবে দেখা উচিত যে এই বিচারধারাকে আর আগে যেতে দেওয়া উচিত কিনা? একবার ভেবে দেখা উচিত।"

আরও পড়ুন, MIM-এর সঙ্গে জোট নিয়ে আলোচনার পরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত : আব্বাস, রাজনীতির কল্কে এখানে পাবে না: ত্বহা

মন্ত্রীদের আয়ু আর ৬ মাস, IPS-রা রাতের অন্ধকারে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন : Sabyasachi