NIA ধরতেই গায়ে ধুম জ্বর ছত্রধরের, সোজা গেলেন হাসপাতাল

সেখান থেকে বেরিয়ে সোজা পিয়ারলেস হাসপাতালে যান ছত্রধর মাহাত। 

Updated By: Sep 25, 2020, 07:05 PM IST
NIA ধরতেই গায়ে ধুম জ্বর ছত্রধরের, সোজা গেলেন হাসপাতাল

নিজস্ব প্রতিবেদন: গায়ে জ্বর, শুক্রবার তাই আদালতে ঢুকলেন না তিনি। গাড়িতেই বসে রইলেন প্রায় তিন ঘণ্টা। সেখান থেকে বেরিয়ে সোজা পিয়ারলেস হাসপাতালে যান ছত্রধর মাহাত। আজ কলকাতায় এসেছেন ছত্রধর মাহাতো। এক দশকেরও বেশি পুরনো কিছু মামলায় NIA তাঁকে ফের তলব করেছিল। এই নিয়ে তৃতীয়বার NIA তলব। 

এদিন NIA আদালতে হাজিরা দেওয়ার কথা থাকলেও জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট থাকার কারণে আদালতের ভিতরে ঢোকেননি তিনি। সূত্রের খবর, গায়ে ধুম জ্বর থাকায় সোজা হাসপাতালে গিয়েই ভর্তি হলেন তিনি। জিজ্ঞাসাবাদ আপাতত স্থগিদ বলেই জানা যাচ্ছে।

আরও পড়ুন: একবালপুরে রক্তারক্তি কাণ্ড! মা ও দুই মেয়েকে খুনের চেষ্টার পর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ খুনির

উল্লেখ্য, গত ২৫ ও ২৬ অগাস্ট তাঁকে জেরা করে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। প্রসঙ্গত, এক দশকের বেশি পুরনো বেশ কতগুলি মামলায় ছত্রধর মাহাতর নাম রয়েছে। ২০০৯-এর ১৪ জুন লালগড়ের ধরমপুরে সিপিআইএম নেতা প্রবীর মাহাতো খুন হন। সেই খুনের ঘটনায় ছত্রধর মাহাতকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। এরপর ওই বছরই রাজধানীতে ছিনতাইয়ের চেষ্টা হয়। ২০০৯-এর শেষেরদিকে দিল্লি-ভুবনেশ্বর রাজধানী হাইজ্যাকের ঘটনাতেও ছত্রধর মাহাতোর নাম উঠে আসে।

এছাড়া পিপলস কমিটি এগেইনস্ট পোলিস অ্যাট্রোসিটিস-এর সক্রিয় সদস্যও ছিলেন ছত্রধর মাহাতো। এই সব নিয়েই ফের তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে NIA সূত্রে খবর মেলে। প্রসঙ্গত, জঙ্গলমহলের একদা নায়ক ছত্রধর মাহাতো দীর্ঘ কারাবাস কাটিয়ে ফেরার পরই ফের সক্রিয়ে রাজনীতিতে প্রবেশ করেছেন। সরাসরি তৃণমূলের রাজ্য কমিটিতে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি।