দুর্যোগে রাজ্যকে ৪১৪ কোটি টাকা সাহায্যের দাবি কেন্দ্রের, খারিজ করল তৃণমূল নেতৃত্ব

এদিকে কেন্দ্র যখন এই দাবি করছে, তখন সাংবাদিক বৈঠক করে পাল্টা সেই দাবি খারিজ করেন রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। একইসুর ডেরেক ও' ব্রায়েনের গলাতেও।

Updated By: Dec 4, 2019, 02:45 PM IST
দুর্যোগে রাজ্যকে ৪১৪ কোটি টাকা সাহায্যের দাবি কেন্দ্রের, খারিজ করল তৃণমূল নেতৃত্ব

নিজস্ব প্রতিবেদন : বুলবুল বিধ্বস্তদের সাহায্য প্রসঙ্গে এবার নয়া মাত্রা পেল কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত। বুলবুল বিধ্বস্তদের কোনও সাহায্য করেনি কেন্দ্র। বিধানসভায় দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের করা এই অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই। পেশ করলেন পাল্টা নথি। ঠিক তারপরই কেন্দ্রের দাবি খারিজ করে পাল্টা বিবৃতি দিলেন রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও রাজ্যসভায় তৃণমূলের দলনেতা ডেরেক ও'ব্রায়েন।

গতকাল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল বিধ্বস্তদের সাহায্যার্থে কেন্দ্রের বঞ্চনার অভিযোগে সরব হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিধানসভায় দাঁড়িয়ে অভিযোগ করেন, "বুলবুল নিয়ে এখনও পর্যন্ত কেন্দ্রের কাছ থেকে কোনওরকম কোনও সাহায্য পাওয়া যায়নি। লেট হোপ ফর দ্যা বেস্ট।" শুধু ঘূর্ণিঝড় বুলবুল প্রসঙ্গে নয়, মুখ্যমন্ত্রী আরও অভিযোগ করেন, "অন্যবারও যখন এরকম প্রাকৃতিক বিপর্যয় হয়েছিল, তখনও কেন্দ্র কিছু দেয়নি।" বলেন, "ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে সাংঘাতিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমরা কেন্দ্রকে সবটা জানিয়েছি। কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল এসেছিল। হেলিকপ্টারে করে তাঁদের পরিদর্শন করানো হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী ঘটনার পরদিন টুইট করেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনওরকম কোনও সাহায্য পাওয়া যায়নি। লেট হোপ ফর দ্য বেস্ট।"

মুখ্যমন্ত্রীর এই অভিযোগের পরই এদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই রাজ্যসভায় এক প্রশ্নের উত্তরে লিখিত জবাবে জানান, ২০১৯-২০ সালে ৪১৪ কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে পশ্চিমবঙ্গকে। পশ্চিমবঙ্গের আপৎকালীন মোকাবিলায় যে তহবিল রয়েছে, সেই তহবিলে কেন্দ্রের যে অংশীদারিত্ব রয়েছে, তাতেই দেওয়া হয়েছে ওই টাকা। বাংলা ও ওড়িশার আপৎকালীন মোকাবিলার তহবিলে কেন্দ্রের তরফে টাকা দেওয়া হয়।

এদিকে কেন্দ্র যখন এই দাবি করছে, তখন সাংবাদিক বৈঠক করে পাল্টা সেই দাবি খারিজ করেন রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, "কেন্দ্র কোনও ফান্ড দেয়নি।" একইসুর ডেরেক ও' ব্রায়েনের গলাতেও। ফণি দুর্যোগে কেন্দ্রের সাহায্য দেওয়ার দাবি খারিজ করে দিয়েছেন ডেরেকও। টুইট করে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে দ্বিচারিতা, মিথ্যাচারণের অভিযোগ আনেন তিনি। টুইটে ডেরেক লেখেন-

আরও পড়ুন, "আমরা মশা আমদানি করলে, ফার্স্ট বলতাম আপানাদের কামড়াতে"