'প্রথমে চিঠি, তারপর রেলমন্ত্রীর নির্দেশে নবান্নে যান আধিকারিক', সাফ জানাল মেট্রো কর্তৃপক্ষ

মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ না জানানোর অভিযোগে রাজ্যের তরফে বয়কট করা হয় ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

Edited By: সুদেষ্ণা পাল | Updated By: Feb 13, 2020, 02:57 PM IST
'প্রথমে চিঠি, তারপর রেলমন্ত্রীর নির্দেশে নবান্নে যান আধিকারিক', সাফ জানাল মেট্রো কর্তৃপক্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদন : ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ নিয়ে রাজ্যের দাবি ওড়াল রেল। মেট্রোর দাবি, গতকালই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এরপর আজও নবান্নে যান মেট্রোর এক আধিকারিক। নিজে সশরীরে গিয়ে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান তিনি। মেট্রোর তরফে জানানো হয়েছে, রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়ালের নির্দেশে মুখ্যমন্ত্রীকে নিমন্ত্রণ করতে যাওয়া হয়। আজ সকালে মন্ত্রী ফোন করে সশরীরে গিয়ে নিমন্ত্রণ করতে বলেন মুখ্যমন্ত্রীকে। তাঁর সচিব আমন্ত্রণের চিঠি প্রাপ্তির কথা স্বীকার করেছেন বলেও দাবি করেছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার বিকালে যাত্রা শুরু ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর। সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে করুণাময়ী পর্যন্ত চলবে ট্রেন।

কিন্তু এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে অভিযোগ করে রাজ্য। এমনকি পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, মুখ্যসচিব কাউকেই আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলে রাজ্যের তরফে দাবি করা হয়। এই অভিযোগকে ঘিরে ফের রাজ্য-কেন্দ্র সংঘাতের সুর চড়ে। জানা যায়, স্থানীয় সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার ও বিধায়ক সুজিত বসুকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ না জানানোর অভিযোগে রাজ্যের তরফে বয়কট করা হয় ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

এই নিয়ে শুরু হয়ে যায় বিতর্কও। বাম আমলে টালিগঞ্জ থেকে গড়িয়া মেট্রোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রসঙ্গ টেনে, এঘটনা 'ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি' বলে কটাক্ষ করেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। বিজেপির মনোজ টিক্কা তোপ দাগেন, "আমাদেরও কোনও কর্মসূচিতে রাজ্য সরকার ডাকে না। আর ডাকলেও তো উনি জান না। এই সংস্কৃতি উনি-ই চালু করেছেন।"অন্যদিকে, পরিষদীয় মন্ত্রী তাপস রায় তোপ দাগেন, "অসৌজন্যের রাজনীতি করতে অভ্যস্ত বিজেপি। বিজেপির থেকে এর বেশি কিছু আশা করা যায় না।" পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, "তালিবানি কায়দায় দেশ চালাচ্ছে বিজেপি। মেট্রো প্রকল্পের জন্য মুখ্যমন্ত্রী যা করেছেন, রাজ্যের মানুষ তা মনে রাখবেন।"

আরও পড়ুন, নেতাদের অপরাধ-শাস্তির রেকর্ড ওয়েবসাইটে জানাতে হবে, রাজনৈতিক দলগুলিকে কড়া 'সুপ্রিম' নির্দেশ

আরও পড়ুন, দিল্লিকে সামনে রেখে দিলীপকে খোঁচা সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তের, তেড়ে জবাব বিজেপি রাজ্য সভাপতির

অন্যদিকে বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, "আমন্ত্রণ জানানো না হয়ে থাকলে, তা অত্যন্ত অন্যায়। আমরা তীব্র ভাষায় এর নিন্দা করছি। আজকে কলকাতার মানুষের একটা খুশির দিন। প্রথা হল বড় কোনো কর্মসূচিতে মুখ্যমন্ত্রীকে ডাকা। কিন্তু এটা তো তিনি-ই শুরু করেছিলেন। টালিগঞ্জ থেকে মেট্রো সম্প্রসারণের সময় তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে ডাকা হয়নি। একই পথে হাঁটছেন উনি আর বিজেপি। আমরা দুটোরই নিন্দা করছি।"  একইসুরে কংগ্রেস নেতা মনোজ চক্রবর্তীও বলেন, "হিস্ট্রি রিপিটস। গত ৯ বছরে আমাদেরও কোনও কর্মসূচিতে যেমন ডাকা হয় না। ঠিক একই ঘটনা ঘটল। এটা গণতন্ত্রের পক্ষে অত্যন্ত খারাপ।"