কারও যদি চোখে ন্যাবা হয় আমি কী করতে পারি! ভোট-হিংসার অভিযোগের জবাব Mamata-র

ফলপ্রকাশের পর থেকে ভোট পরবর্তী হিংসার (West Bengal Post Poll Violence) অভিযোগ তুলছেন রাজ্যের বিজেপি নেতারা (BJP)।

Updated By: Jun 17, 2021, 06:23 PM IST
কারও যদি চোখে ন্যাবা হয় আমি কী করতে পারি! ভোট-হিংসার অভিযোগের জবাব Mamata-র

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসার (West Bengal Post Poll Violence) ঘটনা নেই। দু-একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনায় কড়া পদক্ষেপ করেছে প্রশাসন। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে একথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তাঁর বক্তব্য, সবটাই বিজেপির পূর্বপরিকল্পিত। বাংলায় হারার পরও লজ্জা নেই।     

ফলপ্রকাশের পর থেকে বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসার (West Bengal Post Poll Violence) অভিযোগ তুলছেন রাজ্যের বিজেপি নেতারা। টুইটারে সরব হন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। সোমবার একই অভিযোগে ৫০ জন বিজেপি বিধায়ককে নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। ওই দিনই মুখ্যমন্ত্রীর 'নীরবতা' নিয়ে সাংবাদ মাধ্যমের কাছে প্রশ্ন তোলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় (Jagdeep Dhankhar)। তার পর মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠিও দেন তিনি। ওই চিঠিতে রাজ্যপাল লেখেন, ''ভোট পরবর্তী হিংসার জেরে বাংলায় লঙ্ঘিত হয়েছে মানবাধিকার। বিরোধী কর্মীদের উপরে হামলা হচ্ছে। লাঞ্ছনার শিকার মহিলারা। এত কিছুর পরেও মুখ্যমন্ত্রী নীরব। কোনও পদক্ষেপ করেননি।'' রাজ্যপালের এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) প্রতিক্রিয়া দেন,''আপনারা তো সাংবাদিক। আপনারা কি দেখতে পাচ্ছেন কিছু? আমার আগে তো সব আপনারা দেখতে পারেন। খোঁজখবর বেশি রাখেন। অথচ আপনাদের চোখে পড়ছে না। কারও যদি চোখে ন্যাবা হয় আমি কী করতে পারি! আমি ওঁর সম্পর্কে বলিনি। বলেছি কারও যদি হয়।'' 

রাজ্যে মানবাধিকার ও মহিলা কমিশনের আসার নেপথ্যেও রাজনীতি রয়েছে বলে মনে করেন মমতা (Mamata Banerjee)। তিনি বলেন,''যে কেউ যে কোনও রাজ্যে যেতে পারে। তবে তাদের একটু উত্তরপ্রদেশ ও গুজরাটে যাওয়া উচিত ছিল। সেখানে নদীতে মৃতদেহ ভাসিয়ে দেওয়া হচ্ছে।লোপাট করা হচ্ছে কোভিড তথ্য। বাংলায় হারার পরও লজ্জা নেই বিজেপির। এটাই বিজেপির অভ্যাস। সবটাই পূর্বপরিকল্পিত। নির্বাচনে কমিশনের হাতে আইনশৃঙ্খলার দায়িত্ব ছিল। তখন হিংসার ঘটনা ঘটেছিল। তবে সব ঘটনায় রাজনীতি নেই। ব্যক্তিগত আক্রোশও ছিল। আমি হিংসাকে সমর্থন করি না। পুলিস ও প্রশাসন কড়া ব্যবস্থা নিতে বলেছি। বাংলায় কোনও হিংসা নেই। একটা-দুটো বিক্ষিপ্ত ঘটনা ঘটলে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এটা বিজেপির গিমিক ভায়োলেন্স।''

আরও পড়ুন- চাষিদের আয় বেড়েছে ৩ গুণ, কৃষক বন্ধু বড় প্রকল্প, সারা ভারতে বাংলাই প্রথম: Mamata

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)