দিলীপের সঙ্গে হাই, হ্যালোর সম্পর্ক, বিজেপির রাজ্য সভাপতির দাবি নস্যাৎ মহুয়ার

১৪ অগাস্ট শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিজেপি যোগদানের দিনই দিল্লির সদর দফতরে হাজির হয়েছিলেন দেবশ্রী রায়।

Updated By: Sep 5, 2019, 08:00 PM IST
দিলীপের সঙ্গে হাই, হ্যালোর সম্পর্ক, বিজেপির রাজ্য সভাপতির দাবি নস্যাৎ মহুয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদন: দেবশ্রী রায়ের সঙ্গে তাঁকে দেখা করতে অনুরোধ করেছিলেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। এমন দাবি করে তৃণমূলকে অস্বস্তিতে ফেলেছেন দিলীপ ঘোষ। বিজেপির রাজ্য সভাপতির দাবি খারিজ করলেন মহুয়া। তাঁর বক্তব্য, এনিয়ে দিলীপের সঙ্গে কোনও কথা হয়নি।      

১৪ অগাস্ট শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিজেপি যোগদানের দিনই দিল্লির সদর দফতরে হাজির হয়েছিলেন দেবশ্রী রায়। কিন্তু শোভনের আপত্তিতে আর দলে যোগ দেওয়া হয়নি। খালি হাতে ফিরে আসেন রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক। এরপর দিলীপ ঘোষের বাড়িতেও গিয়েছিলেন। তবে দেখা পাননি। এদিন সেই দেবশ্রীকে নিয়ে বোমা ফাটালেন দিলীপ ঘোষ। বলেন, “মহুয়া মৈত্র আমাকে বলেছেন দেবশ্রী রায় এখন তৃণমূলেও নেই বিজেপিতেও যেতে পারেননি। বিষয়টা একটু দেখুন। দেবশ্রী আমার বাড়িতে এসেছিলেন। আমি বললাম কে আপনাকে দিল্লি নিয়ে গিয়েছিল? জানতে পারি একটি এনজিও দিল্লি নিয়ে গিয়েছিল তাঁকে।”

দিলীপের দাবি অস্বীকার করেছেন মহুয়া মৈত্র। তাঁর কথায়, ''১০ মার্চের পর দেবশ্রীর সঙ্গে  কথা হয়নি। দিলীপ ঘোষের সঙ্গে আমার হাই, হ্যালোর সম্পর্ক। কে কোথায় কী বলেছে জানি না।''

মহুয়া বলেন,''সংসদের সেন্ট্রাল হলে দিলীপ ঘোষের সঙ্গে দেখা হয়েছে। ওনার সঙ্গে  দেবশ্রী  নিয়ে কথা হয়নি বা আলাদা  করে দেখাও হয়নি। যেদিন  বিধানসভায় এলেন আমায় বললেন, করিমপুর যাচ্ছি। আমি বললাম ইয়ার্কি মেরে বলেছি, আমার জন্য এক্সট্রা ঝামেলা তৈরি করবেন না। এর থেকে বেশি কিছু বলার নেই। অযথা বিতর্কে থাকার ব্যাপার নেই।''

মহুয়া-দিলীপ যোগ নিয়ে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্য, আমি এর ভেরিফিকেশ করিনি। মহুয়া মৈত্র দলের সাংসদ। দল খবর নেবে। আমার কাছে কোনও খবর নেই।   

আরও পড়়ুন- ‘কারোর মন আপনি কীভাবে পরিবর্তন করবেন?’ বনগাঁ পুরসভার আস্থা ভোট নিয়ে বিজেপির মামলা খারিজ করল হাইকোর্ট