দলকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না, বাংলার স্বপ্ন দেখছে, বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে খোঁচা পার্থর

দুর্গাপুরে বিজেপির চিন্তন শিবিরের অদূরে বিজেপি কর্মীদের চেয়ার ছোড়াছুড়ির ঘটনায় কটাক্ষ তৃণমূলের মহাসচিবের।  

Updated By: Aug 11, 2019, 11:55 PM IST
দলকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না, বাংলার স্বপ্ন দেখছে, বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে খোঁচা পার্থর

নিজস্ব প্রতিবেদন: দলকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না। তাঁরা আবার বাংলা নিয়ন্ত্রণের স্বপ্ন দেখছে? দুর্গাপুরে বিজেপির চিন্তন শিবিরের অদূরে দলীয় কর্মীদের চেয়ার ছোড়াছুড়ির ঘটনায় এভাবেই কটাক্ষ করলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।  

বারাবনির তৃণমূল বিধায়ক বিধান উপাধ্যায়ের আত্মীয় মলয় উপাধ্যায়কে কেন বিজেপিতে নেওয়া হল, সেই প্রশ্ন তুলে দুর্গাপুরের  গান্ধীমোড়ের সভায় তুলকালাম বাঁধান বিজেপি কর্মীরা। আবার চিন্তন শিবিরের বাইরে জেলা সভাপতি লক্ষ্মণ ঘোড়ুইকে সরানোর দাবিতে বিক্ষোভ দেখায় এক দল কর্মী। সবমিলিয়ে বেজায় অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির। এর পিছনে তৃণমূলের হাত রয়েছে বলে দাবি করেছেন বিজেপি নেতা বিশ্বপ্রিয় রায়চৌধুরী। বিজেপি শিবিরের এমন ছত্রভঙ্গ অবস্থা দেখে কটাক্ষ করলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। বলেন,'যাঁদের দলের উপরে নিয়ন্ত্রণ নেই, তাঁরা বাংলাকে নিয়ন্ত্রণ করার স্বপ্ন দেখছেন? বিজেপির হাঁড়গোড় সব বেড়িয়ে পড়ছে। বাংলায় একটাই মুখ মমতার। চিন্তন করে মোকাবিলা করা বিজেপির পক্ষে সম্ভব নয়। বাংলায় ওরা বিগ জিরো।' 

প্রশান্তের মস্তিষ্কপ্রসূত 'দিদিকে বলো' কর্মসূচি শুরু করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। নেতা থেকে বিধায়ক নেমে পড়েছেন রাস্তায়। সেই প্রসঙ্গ টেনে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্য, দিদিকে বলো কর্মসূচীর যে ব্যাপক সাড়া পেয়েছে, তাতে বিজেপির মাথার চুল উঠে যাচ্ছে।

প্রশান্ত কিশোরকে অবশ্য পাত্তা দিচ্ছে না বিজেপি। এদিন চিন্তন বৈঠকের পর দিলীপ ঘোষ বলেন, 'বিজেপির সামনে পিকে কোনও ফ্যাক্টরই নয়। সাধারণ মানুষই জেতাবেন। প্রশান্ত অনেক জায়গায় বিফল হয়েছে। সেই তালিকায় পশ্চিমবঙ্গ যুক্ত হতে চলেছে।'

আরও পড়ুন- তৃণমূল বিধায়কের আত্মীয়কে কেন বিজেপিতে? নেতাদের সামনেই চেয়ার ছুড়লেন কর্মীরা