যাদবপুর কাণ্ডের প্রতিবাদে প্রেসিডেন্সির মিছিল আটকে দিল পুলিস

যাদবপুরে পুলিসি সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের বিশাল মিছিল বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিটে আটকে দিল পুলিস। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা জানিয়েছেন ঘটনার দিন তাদের কয়েকজন যাদবপুরে উপস্থিত ছিলেন। তাদের বন্ধুদের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সমর্থন জানাতেই সেখানে ছিলেন তারা। উপাচার্য ও পুলিস কমিশনার যে সশস্ত্র বহিরাগতদের উপস্থিতির দাবি করেছেন তা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন তারা। তারা দাবি করেছেন সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ অবস্থানে তাদের উপস্থিতি ছিল।

Updated By: Sep 19, 2014, 05:38 PM IST
যাদবপুর কাণ্ডের প্রতিবাদে প্রেসিডেন্সির মিছিল আটকে দিল পুলিস

কলকাতা: যাদবপুরে পুলিসি সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের বিশাল মিছিল বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিটে আটকে দিল পুলিস। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা জানিয়েছেন ঘটনার দিন তাদের কয়েকজন যাদবপুরে উপস্থিত ছিলেন। তাদের বন্ধুদের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সমর্থন জানাতেই সেখানে ছিলেন তারা। উপাচার্য ও পুলিস কমিশনার যে সশস্ত্র বহিরাগতদের উপস্থিতির দাবি করেছেন তা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন তারা। তারা দাবি করেছেন সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ অবস্থানে তাদের উপস্থিতি ছিল।

অন্যদিকে, রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী আগামিকাল যাদবপুরের ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন।

শিক্ষামন্ত্রীর কাছে উপাচার্য অভিজিত চক্রবর্তীর ইস্তফার দাবি জানাতে গেলেন জুটার সদস্যরা। আজ বিধানসভায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেন তাঁরা। শিক্ষামন্ত্রীর কাছে যাদবপুরের ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত দাবি করেছে জুটা।  

যাদবপুর-কাণ্ডে উপাচার্যকেই কাঠগড়ায় তুললেন নির্যাতিতার বাবা।  মেয়ের শ্লীলতাহানির ঘটনা ধামাচাপা পড়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি। গতমাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যেই ওই ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করা হয় বলে অভিযোগ। সেই ঘটনার তদন্তের গতিপ্রকৃতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেই ভিসিকে ঘেরাও করেছিলেন ছাত্রছাত্রীরা। খুন হয়ে যেতে পারেন এই আশঙ্কায় পুলিস ডেকেছিলেন, উপাচার্যের এই বক্তব্য মানতে চাননি নির্যাতিতার বাবা। গোটা ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন তিনি।

যাদবপুরে দর্শন বিভাগের প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন অধ্যাপক সৌমিত্র বসু। কিন্তু, তাঁর পদত্যাগের কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা দেখা দিয়েছে। যাদবপুরে পুলিসি অভিযান নিয়ে এর আগেই দুঃখপ্রকাশ করেছিলেন সৌমিত্র বসু। আজ বিভাগীয় প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়ান তিনি। কিন্তু, সৌমিত্র বসু নিজে জানিয়েছেন অনেকদিন আগে থেকেই পদ ছাড়ার কথা ভাবছিলেন তিনি। কিন্তু, তাঁর পদত্যাগের পিছনে পুলিসি অভিযান কারণ নয়, একথাও স্পষ্ট করে বলেননি তিনি। দর্শন বিভাগের প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়াতেই এগজিকিউটিভ কাউন্সিল থেকেও সরে গেলেন সৌমিত্র বসু।