রিজেন্ট পার্ক খুন : প্রেমিকাকে সরাতে কীভাবে বন্দুক বানানো শিখেছিল, পুলিসকে খোলসা করল ধৃত

 এমনকি যে যে ওয়েবসাইটগুলি দেখে জয়ন্ত প্রেমিকাকে খুন করার জন্য বন্দুক বানিয়েছিল, তার কয়েকটি 'অ্যাড্রেস'ও ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সংগ্রহ করেছে পুলিস।

Reported By: অর্ণবাংশু নিয়োগী | Edited By: সুদেষ্ণা পাল | Updated By: Jun 24, 2020, 02:08 PM IST
রিজেন্ট পার্ক খুন : প্রেমিকাকে সরাতে কীভাবে বন্দুক বানানো শিখেছিল, পুলিসকে খোলসা করল ধৃত
জয়ন্ত (বাঁদিকে), প্রিয়ঙ্কা (ডানদিকে)

নিজস্ব প্রতিবেদন : কলকাতা শহর এখন তোলপাড় দু-দুটি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায়। একটি কাঁকুরগাছির আবসানে। যেখানে বেঙ্গালুরু প্রবাসী জামাই স্ত্রীকে খুন করে এসে শাশুড়িকে খুন করে তারপর আত্মঘাতী হয়। অন্যটি রিজেন্ট পার্কে। যেখানে ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত তরুণীকে গুলি করে খুন করে বিবাহিত প্রেমিক। প্রেমিকের স্ত্রী বিবাহিত এটা জানার পরই সম্পর্ক থেকে সরে এসেছিলেন যুবতী। আর তারপরই প্রেমিকা প্রিয়ঙ্কাকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে দেওয়ার ছক কষে প্রেমিক জয়ন্ত হালদার।

তদন্তে নেমে পুলিস জানতে পারে যে ইন্টারনেটে শিখে ঘরেই বন্দুক বানিয়েছিল জয়ন্ত। কিন্তু কীভাবে সেই বন্দুক বানিয়েছিল জয়ন্ত? তদন্তে সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, পূর্বের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়েই বন্দুক বানানো শেখে জয়ন্ত! বর্তমানে জয়ন্ত গাড়ি চালাত। কিন্তু এর আগে সে প্লাম্বার এবং ওয়েল্ডিং কাজ শিখেছিল। সেই অভিজ্ঞতাকেই কাজে লাগায় সে। ধৃত প্রেমিক জয়ন্ত হালদার জেরায় দাবি করেছে, বন্দুক থেকে কার্তুজ বানানোর ক্ষেত্রের দ্বিতীয় কোনও ব্যক্তির উপস্থিতি নেই। বন্দুক বানানোর পুরো বিষয়টাই সে অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও ইউটিউব দেখে বানিয়েছিল। এমনকি যে যে ওয়েবসাইটগুলি দেখে জয়ন্ত প্রেমিকাকে খুন করার জন্য বন্দুক বানিয়েছিল, তার কয়েকটি 'অ্যাড্রেস'ও ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সংগ্রহ করেছে পুলিস।

প্রসঙ্গত, গোয়েন্দাদের প্রথম সন্দেহ হয় প্রিয়াঙ্কার শরীরের বুলেট ইনজুরি দেখে। সাধারণত বন্দুক থেকে ছোঁড়া গুলিতে যে ধরণের ক্ষত তৈরি হয়, প্রিয়ঙ্কার ক্ষত তার থেকে অনেকটাই আলাদা ধরনের ছিল। পোস্টমর্টেম রিপোর্ট দেখে বোঝা যায় যে, প্রিয়াঙ্কার শরীরে ক্ষত খুবই নিম্নমানের বুলেট থেকে তৈরি। এরপরই নড়েচড়ে বসেন গোয়েন্দারা। ধৃত জয়ন্তকে জেরা করতেই তারপর বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। যে কোনও বন্দুক তৈরি করতে দরকার কাঁচামাল ব্যারেল-হ্যামার ও লোহার পাত। ইন্টারনেট ঘেঁটে তা বুঝে নেয় জয়ন্ত। 

বিভিন্ন হার্ডওয়্যারের দোকান ঘুরে সেসব জোগাড় করে ফেলে। তারপর ছোট ওয়েল্ডিং মেশিন কিনে আনে সে। প্লাম্বার এবং ওয়েল্ডিং কাজের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন জয়ন্ত এরপর বাড়িতেই ঝালাই করে বানিয়ে ফেলে ওয়ান শটার। বন্দুক তৈরি। এবার দরকার কার্তুজের। এবারও ভরসা সেই ইন্টারনেট। জেরায় জয়ন্ত জানিয়েছে, বল-বেয়ারিং ও আতস বাজি তৈরির মশলা দিয়ে সে কার্তুজ তৈরি করেছিল।

রিজেন্ট পার্ক খুন সংক্রান্ত আরও খবর পড়ুন, 

সোমবার ডেলিভারি! রাতে স্ত্রীর সঙ্গে 'নতুন অতিথি'র বিষয়ে গল্প করে সকালে প্রেমিকাকে খুন জয়ন্তর!

বিবাহিত জেনেও সম্পর্ক, কিন্তু প্রেমিকের স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা জানতে পেরেই সরে এসেছিল কলেজছাত্রী! অতঃপর খুন

ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত তরুণীকে গুলি, ঘাড়ের ক্ষত দিয়ে বেরিয়ে এল মাংসপিণ্ড... ভয়ঙ্কর ঘটনা রিজেন্ট পার্কে!