সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের গানের পর আর গাওয়ার সাহস হল না প্রথিতযশাদের

সংগীত মেলা হয়ে উঠল 'সন্ধ্যামুখর'। সোনালি দিন ফিরিয়ে আনলেন সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। তাঁর গানের পর 'ওয়াকওভার' দিলেন শিল্পীরা।  

Updated By: Dec 23, 2017, 10:14 PM IST
সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের গানের পর আর গাওয়ার সাহস হল না প্রথিতযশাদের
-নিজস্ব চিত্র।

কমলিকা সেনগুপ্ত

'সাদা কালোর যুগ' থেকে তাঁর গানে বারবার মুগ্ধ হয়েছে আপামর বাঙালি। 'এই পথ যদি না শেষ...' আজও শিহরিত করে বাঙালিকে। সেই 'গান শোনাবার লগন' ফিরে এল আলিপুরের প্রেক্ষাগৃহে। সংগীত মেলার উদ্বোধনে সোনালি দিনে ফিরে গেলেন সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। জীবন্ত কিংবদন্তীর মুক্তঝরা 'পারফরম্যান্সে'র পর বাকরুদ্ধ গোটা অডিটোরিয়াম। 

আইফোনের জমানায় সুরের মূর্চ্ছনায় সংগীত মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয়ে উঠল 'সন্ধ্যামুখর'। গোটা হল তখন দাঁড়িয়ে উঠে হাততালির গর্জনে শ্রদ্ধাবনত। ক্রিকেটে একটা কথা চালু আছে, 'ফর্ম ইজ টেম্পোরারি, ক্লাস ইজ পারমানেন্ট'।সংগীতের মঞ্চে নিজের সেই 'ক্লাস'ই দেখালেন সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। ধরলেন, 'ঘুম ঘুম চাঁদ, ঝিকিমিকি তারা।' গান শেষ করার আগেই উঠে পড়েছে গোটা হল। স্ট্যান্ডিং ওভেশন শিল্পীকে।  

আরও পড়ুন- বেঙ্গল টাইগারের দেহরক্ষী জার্মান শেফার্ড!

সংগীত মেলায় অভিজিত্, জিত গঙ্গোপাধ্যায়, ঊষা উত্থুপ-সহ আরও অনেক প্রথিতযশা শিল্পীর গান গাওয়ার কথা ছিল। তবে সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়ের গানের পর আর গাওয়ার 'দুঃসাহস' দেখালেন না তাঁরা। ক্লাসিকের পর আর কীই বা পরে থাকে! মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করলেন, শিল্পীরাই জানালেন, সন্ধ্যাদির গানের পর আর কেউ গাইতে চান না। গায়ক অভিজিতের কথায়, '' মা সরস্বতীর নাম শুনেছি। এই গানের পর মা সরস্বতীর সামনে গাওয়ার সাহস নেই আমাদের।''