বাবাকে বঁটির কোপ মদ্যপ ছেলের

চেতলার সেন্ট্রাল রোডের এক তলা বাড়িতে বাস দত্ত পরিবারের। স্থানীয়দের কথায়, প্রতিদিনই ওই বাড়ি থেকে চিল-চিত্কারের আওয়াজ আসত। বেশিরভাগই বাড়ির মালিক নীলরতন দত্ত ও তাঁর ছেলে রজতের গলায় আওয়াজ শোনা যেত। 

Updated By: Feb 15, 2018, 10:51 AM IST
বাবাকে বঁটির কোপ মদ্যপ ছেলের

নিজস্ব প্রতিবেদন:  নেশার টাকা না পেয়ে বাবাকে বঁটির কোপ মদ্যপ ছেলের। কোনও গ্রামগঞ্জের নয়, খাস কলকাতার বুকে চেতলায় গুণধর ছেলের এই কীর্তি দেখে হতবাক পুলিসও। অভিযুক্ত ছেলে রজত দত্তকে আটক করেছে পুলিস। আক্রান্ত বৃদ্ধ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন।

আরও পড়ুন: রেললাইনে ট্রাক্টরে মালগাড়ির ধাক্কা, সাতসকালেই ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা

চেতলার সেন্ট্রাল রোডের এক তলা বাড়িতে বাস দত্ত পরিবারের। স্থানীয়দের কথায়, প্রতিদিনই ওই বাড়ি থেকে চিল-চিত্কারের আওয়াজ আসত। বেশিরভাগই বাড়ির মালিক নীলরতন দত্ত ও তাঁর ছেলে রজতের গলায় আওয়াজ শোনা যেত। রজত যে নিত্য মদ্যপান করেন, তা অজানা নয় স্থানীয়দেরও। সেই ইস্যুতে বাবা-ছেলের মধ্যে নিত্য অশান্তির কথাও জানতেন তাঁরা। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে অশান্তি মাত্রা ছাড়ায়। প্রথমদিকে খুব একটা বেশি আমল না দিলেও, নীলরতনবাবু ও তাঁর স্ত্রীর আর্তচিত্কার শুনতে পেয়ে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। দেখা যায়, মদ্যপ অবস্থায় বটি হাতে তুলে বাবাকে কোপাচ্ছেন রজত।

আরও পড়ুন: বিহারে বন্ধুর মামাবাড়িতে গা-ঢাকা ৫ কিশোর-কিশোরীর, কুঁদঘাটকাণ্ডে মিলল স্বস্তি

প্রতিবেশীদের দেখামাত্রই বটি ফেলে পালিয়ে যান রজত। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিস। পুলিসের কাছে রজতের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন স্থানীয়রা। তদন্তে পুলিস জানতে পারে,  নেশা করার টাকা না পেলে বাবাকে মাঝেমধ্যেই মারধর করতেন রজত। নীলরতনবাবুর স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁদের ছেলে রজতকে আটক করে পুলিস।