শপিংমলের ট্রায়াল রুম থেকে বিনোদন পার্কের লকার রুম, সুরক্ষার বেহাল দশা

শপিংমলের ট্রায়াল রুম থেকে বিনোদন পার্কের লকার রুম। ওত পেতে গোপন চোখের দৃষ্টি। ক্যামেরার ফাঁদে নারী শরীর। নামী সংস্থা, দামি ব্র্যান্ড। তারপরেও সুরক্ষার বেহাল দশা। একের পর এক সামনে এসেছে সেই সব ঘটনা। পিপিং টমের চোখ থেকে নিস্তার পাননি খোদ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও। অবদমিত বাসনা। কামনার কলিযুগে ঘুরে বেড়ায় চোখ। বেডরুমের ছিদ্রপথ কিংবা শপিং মলের ট্রায়াল রুম। কামনার প্রজাপতিরা উড়ে গিয়ে বসে মনের জানলায়। 

Updated By: Jun 27, 2016, 07:51 PM IST
শপিংমলের ট্রায়াল রুম থেকে বিনোদন পার্কের লকার রুম, সুরক্ষার বেহাল দশা

ওয়েব ডেস্ক: শপিংমলের ট্রায়াল রুম থেকে বিনোদন পার্কের লকার রুম। ওত পেতে গোপন চোখের দৃষ্টি। ক্যামেরার ফাঁদে নারী শরীর। নামী সংস্থা, দামি ব্র্যান্ড। তারপরেও সুরক্ষার বেহাল দশা। একের পর এক সামনে এসেছে সেই সব ঘটনা। পিপিং টমের চোখ থেকে নিস্তার পাননি খোদ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও। অবদমিত বাসনা। কামনার কলিযুগে ঘুরে বেড়ায় চোখ। বেডরুমের ছিদ্রপথ কিংবা শপিং মলের ট্রায়াল রুম। কামনার প্রজাপতিরা উড়ে গিয়ে বসে মনের জানলায়। 

সিরিয়ালের বিখ্যাত মুখ। সুন্দরী সাস। কভি বহু ভি থি। এখন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। পিপিং টমের চক্ষুলালসা থেকে বাদ যাননি তিনিও। গোয়ায় গিয়েছিলেন স্বামীর সঙ্গে। ফ্যাব ইন্ডিয়ায় ঢোকেন জামাকাপড় কিনতে। ট্রায়াল রুমে গোপন ক্যামেরা লাগানো ছিল বলে অভিযোগ স্মৃতি ইরানির। সঙ্গে সঙ্গেই প্রতিবাদ। স্বামী জুবিন ইরানি তত্ক্ষণাত্‍ অভিযোগ জানান পুলিস সুপারকে। সঙ্গে সঙ্গে অ্যাকশন।

আরও পড়ুন হাইল্যান্ড পার্ক ট্রায়াল রুমে ক্যামেরাকাণ্ডে অবশেষে গ্রেফতার অভিযুক্ত যুবক

তদন্তে পুলিস দেখতে পায়, চেঞ্জিং রুমের ঘুলঘুলিতে লাগানো সিসিটিভি ক্যামেরা। হার্ডডিস্ক এবং সেই ক্যামেরা বাজেয়াপ্ত করে পুলিস। গ্রেফতার করা হয় ৪ কর্মীকে। এখানেই শেষ নয়। সপ্তাহ দুয়েক পরেই ফের লকার রুম কেচ্ছা। এবার খাস কলকাতায়।

রবিবারের দুপুরে অ্যাকোয়াটিকায় স্নানে গিয়েছিলেন একঝাঁক সুন্দরী। আবিষ্কার করেন লকার রুমে গোপন ক্যামেরা। ওয়াটার পার্ক কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগে ফেটে পড়েন তাঁরা। পুরুষ বাউন্সার দিয়ে তাঁদের হেনস্থা করা হয় বলে অভিযোগ। লেদার কমপ্লেক্স থানার পুলিস গিয়ে লকার রুম থেকে সিসিটিভি ক্যামেরা বাজেয়াপ্ত করে। গ্রেফতার করা হয় ম্যানেজারকে। কিছুদিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয় অ্যাকোয়াটিকা। তবুও বদলায়নি ছবিটা। এরপর পিপিং টমের উঁকি হাইল্যান্ড পার্কের বিগবাজারে।

আরও পড়ুন কলকাতার অভিজাত শপিং মলের মহিলা ট্রায়াল রুমে গোপন ভিডিও, ধৃত যুবক

ভরসন্ধেয় হাইল্যান্ড পার্কে বন্ধুর সঙ্গে পোশাক কিনতে যান এক তরুণী। ট্রায়ালরুমে ঢুকে তাঁর নজরে পড়ে ছিদ্রপথে পাশের রুম থেকে তাঁর ছবি তোলার চেষ্টা করছে এক যুবক। তদন্তে নামে সার্ভে পার্ক থানার পুলিস। তদন্তে জানা যায়, এক এজেন্সির হয়ে ট্রায়াল রুমের দায়িত্বে ছিল ওই যুবক। গ্রেফতার করা হয় ওই যুবককে। প্রশ্ন ওঠে, মহিলাদের ট্রায়ালরুমে ছিদ্র থাকা সত্ত্বেও কর্তৃপক্ষের নজর এড়াল কী করে? ঘটনার পর মোবাইল ফেলে নিরাপত্তারক্ষীদের সামনে দিয়ে অভিযুক্ত যুবক পালালই বা কী করে? নামী শপিং মলে কেনাকাটাতেই ক্রমশ আতঙ্ক গ্রাস করছে উদ্বিগ্ন ক্রেতাদের।