স্বাস্থ্যবিধি ও সুরক্ষা নিশ্চিত করে অক্টোবর থেকেই পর্যটকদের জন্য দরজা খুলছে সিকিম!

সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে, সুরক্ষার ঘেরাটোপে সিকিমে ফের শুরু হতে চলেছে পর্যটকদের আনাগোনা।

Edited By: সুদীপ দে | Updated By: Sep 6, 2020, 04:45 PM IST
স্বাস্থ্যবিধি ও সুরক্ষা নিশ্চিত করে অক্টোবর থেকেই পর্যটকদের জন্য দরজা খুলছে সিকিম!
ছবি: সংগৃহীত।

নিজস্ব প্রতিবেদন: অক্টোবরের পর থেকে পর্যটকদের জন্য ফের নিজেদের দরজা খোলার পরিকল্পনা করছে সিকিম। করোনা আতঙ্কের আবহে পর্যটকদের জন্য নিরাপদ গন্তব্য হিসাবে তুলে ধরতে বদ্ধ পরিকর রাজ্য পর্যটন দফতর। রাজ্যের জনসংখ্যার প্রায় ১৫ শতাংশকে নিযুক্ত করে লকডাউনের কারণে মারাত্মক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয় মানুষের পাশে দাঁড়াতে উদ্যোগী পর্যটন দফতর।

শুক্রবার রাজ্য পর্যটন দফতর পরিষেবা পুনরায় চালু করার কৌশল নিয়ে আলোচনার জন্য সকল অংশীদারদের (স্টেকহোল্ডার) সাথে একটি বৈঠক করেছে। এই বৈঠকে 'পুনরায় চালু হচ্ছে রাজ্য পর্যটন' শীর্ষক একটি খসড়া প্রস্তাব নিয়ে আসা হয়।

এই প্রস্তাবে বলা হয়েছে, “রাজ্য তার পর্যটন শিল্পকে বেশি দিন পর্যন্ত বন্ধ করে রাখা সম্ভব নয়। পর্যটন পুনরায় শুরু হওয়ার ফলে এই রোগের সংক্রমণ হওয়ার ঝুঁকি বাড়বে। তাই পর্যটন কেন্দ্রটির দ্বার উন্মুক্ত করার আগে স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা জরুরি।”

Sikkim

রাজ্যকে নিরাপদ পর্যটন কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার স্বার্থে আনুসাঙ্গিক প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য-সুরক্ষা এবং সুপরিকল্পিত চিকিত্সা ব্যবস্থা গড়ে তোলা জরুরি। এই প্রস্তাবে বলা হয়েছে, “এই পদক্ষেপ স্বাভাবিক ভাবেই সিকিমের পর্যটনশিল্পকে পুনরূদ্ধার ও এরং সঙ্গে জড়িত মানুষের ভবিষ্যৎ সুনিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছে।” এই প্রস্তাবে কতগুলি শর্ত ও নির্দেশ মেনে চলার কথা বলা হয়েছে...

যে কোনও ট্র্যাভেল এজেন্ট এবং ভ্রমণ সঞ্চালনা সংস্থাকে পর্যটকদের পরিবহণ সংক্রান্ত যাবতীয় পরিষেবার ক্ষেত্রে (পর্যটকদের পিক-আপ আর ড্রপ) রাজ্য পর্যটন দফতরের অনুমোদন বাধ্যতামূলক। পর্যটন দফতরের নির্দেশ অনুযায়ী, সমস্ত সুরক্ষা-বিধি মানলে তবেই এই অনুমোদন মিলবে। DOT এবং CAv-এ নথিভূক্ত হোটেল ও ভ্রমণ সঞ্চালনা সংস্থাগুলিই এই আবেদনের যোগ্য।

আরও পড়ুন: ৭০ দিন পর পর্যটকদের জন্য খুলে গেল টিলাবাড়ি ট্যুরিস্ট কমপ্লেক্স!

সিকিমে পর্যটকদের সমস্ত পরিষেবা সুনিশ্চিত করতে ও পরিকাঠামোর তদারকির জন্য রংপো এবং মেলিতে পর্যাপ্ত কর্মী নিয়োগ করা হবে। এখানে পর্যটকদের করোনার নেগেটিভ রিপোর্টের প্রমাণপত্র (৩ দিনের বেশি পুরনো হলে চলবে না), বুকিংয়ের প্রামাম্য নথিপত্র ইত্যাদি পরীক্ষা করে দেখা হবে। সমস্ত বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য একটি বিশেষ দলও গঠন করা হচ্ছে (Central Monitoring Team)। সব মিলিয়ে সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে, সুরক্ষার ঘেরাটোপে সিকিমে শুরু হতে চলেছে পর্যটকদের আনাগোনা।