করোনা, আমফান এবার ধস! অসমে ভূমিধসে প্রাণ গেল ২০ জনের

বিগত কয়েকদিন ধরেই ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছিল ওই এলাকায়। তার জন্য়ই মূলত এই ভূমিধস। অসমের ভয়ানক বন্যার পর এখনও ঠিক করে স্বাভাবিক হতে পারেনি প্রায় ৩ লক্ষ ৭২ হাজার মানুষ

Updated By: Jun 2, 2020, 04:43 PM IST
করোনা, আমফান এবার ধস! অসমে ভূমিধসে প্রাণ গেল ২০ জনের
ছবি- এএনআই

নিজস্ব প্রতিবেদন: একে তো করোনার চোখরাঙানিতে হাজার হাজার প্রাণ যাচ্ছে। আবার বিধ্বংসী ভূমিধসে প্রাণ গেল প্রায় ২০ জনের। দক্ষিণ অসমের বারাক উপত্যকা অঞ্চলে নামল ভয়াবহ ধস। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তিনটি জেলার বিস্তীর্ণ অংশ। কাচার জেলায় ৭ জন, হাইলাকান্ডিতে ৭ এবং করিমগঞ্জের  ৬ জনকে নিয়ে মোট ২০ জনের মৃত্যুর খবর এপর্যন্ত মিলেছে। নিহতদের মধ্যে ১১ জন শিশু রয়েছে। ভয়াবহ এই ভূমিধসের সঙ্গে সঙ্গেই বিধ্বস্ত অঞ্চলে ছুটে গিয়েছে উদ্ধারকারী দল।

বিগত কয়েকদিন ধরেই ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছিল ওই এলাকায়। তার জন্য়ই মূলত এই ভূমিধস। অসমের ভয়ানক বন্যার পর এখনও ঠিক করে স্বাভাবিক হতে পারেনি প্রায় ৩ লক্ষ ৭২ হাজার মানুষ।  বন্যার কারণে মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। প্রায় ৩৪৮ টি গ্রাম জলের তলায় ডুবে গিয়েছে। ২৭ হাজার হেক্টর কৃষিজমির শস্য নষ্ট হয়েছে । ফের আবার এই দূর্যোগ। যা রীতিমতো তছনছ করে দিল অসমকে। প্রসঙ্গত ঘূর্ণিঝড় আমফানের দরুনও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল অসমের পাঁচ জেলায়।

ইতিমধ্যে অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল দ্রুত গতিতে উদ্ধারকার্যের নির্দেশ দিয়েছেন। এবং মৃত ব্যক্তির পরিবারের জন্য এককালীন অর্থ প্রদানের কথাও বলেছেন। অসমের বন দফতরের মন্ত্রী পরিমল শুক্লাবৈদ্য নিজে ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছেন। এখনও পর্যন্ত ২০ জনের মৃত্যুর খবর এলেও উদ্ধারকারী দলের আশঙ্কা মাটির তলায় আরও অনেকে চাপা পড়ে রয়েছেন। মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে পারে। অসম সরকার নিহতদের পরিবারকে ৪ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছে। 

আরও পড়ুন- ভোর রাতে বাড়ির মধ্যে উদ্ধার প্রৌঢ়ের গলা কাটা দেহ, চাঞ্চল্য