গ্রামাঞ্চলে বাড়িতে শৌচাগারের অনুপস্থিতি বাড়িয়ে দিচ্ছে ধর্ষিত হওয়ার সম্ভাবনা!

আপনি কি একজন মহিলা? আপনি কি গ্রামে থাকেন? আপনার বাড়িতে কি শৌচাগার নেই? প্রকৃতির ডাকে আপনাকে পার্শ্ববর্তী মাঠে? তবে এবার থেকে সাবধান হন! এই সব কটি প্রশ্নের উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে এদেশে আপনার যখন তখন ধর্ষিত হওয়ার সম্ভাবনাও কিন্তু প্রবল ভাবে বৃদ্ধি পায়।

Updated By: Jun 3, 2014, 11:25 AM IST

আপনি কি একজন মহিলা? আপনি কি গ্রামে থাকেন? আপনার বাড়িতে কি শৌচাগার নেই? প্রকৃতির ডাকে আপনাকে পার্শ্ববর্তী মাঠে? তবে এবার থেকে সাবধান হন! এই সব কটি প্রশ্নের উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে এদেশে আপনার যখন তখন ধর্ষিত হওয়ার সম্ভাবনাও কিন্তু প্রবল ভাবে বৃদ্ধি পায়।

উত্তরপ্রদেশে একের পর ধর্ষণের ঘটনা সে রাজ্যে নারী সুরক্ষার হালকে যখন চরম প্রশ্নের মুখে ফেলে দিয়েছে ঠিক তখনই এর সঙ্গে উঠে এল একটি আপাত দৃষ্টিতে সম্পর্কহীন সমস্যার কথা। উত্তরপ্রদেশের এক উচ্চপদস্থ পুলিস অফিসার জানিয়েছেন সে রাজ্যে গ্রামাঞ্চলে ধর্ষণের ঘটনা বেশিরভার ক্ষেত্রে তখনই ঘটেছে যখন মহিলার বাড়িতে শৌচাগার না থাকার কারণে রাতে প্রকৃতির ডাক সামলাতে বাইরে বেড়িয়েছেন।

`ন্যাশনল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো` অনুযায়ী উত্তরপ্রদেশ গড়ে প্রতিদিন ১০টি করে ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত হয়। তারমধ্যে ৬০%-৬৫% ক্ষেত্রেই ঘটনাগুলি ঘটে যখন মহিলারা রাতে মল-মূত্র ত্যাগ করতে বাড়ির বাইরে বেড়োন।

উত্তরপ্রদেশের মানবাধিকার কমিশন গ্রামাঞ্চলে বাড়িতে শৌচাগারের অনুপস্থিতির সঙ্গে ধর্ষণের ঘটনার সরাসরি সম্পর্ক টেনেছে। সে রাজ্যের মুখ্য সচিবের কাছে এই ধরণের ঘটনার বিস্তারিত রিপোর্টও চেয়ে পাঠিয়েছে কমিশনের অধীনস্থ একটি বেঞ্চ।

বাড়িতে শৌচাগারের অনুপস্থিতি শুধু উত্তরপ্রদেশ নয় সারা দেশেরই গ্রামাঞ্চলের এক বাস্তব সমস্যা। পুরুষ-মহিলা নির্বিশেষে মল-মূত্র ত্যাগ করতে প্রাণ হাতে নিয়েই রাতের অন্ধকারে বাড়ির বাইরে আসেন। সাপ, পোকামাকড়ের কামড় বা হিংস্র জন্তু-জানোয়ারের আক্রমণে মাঝে মাঝে এমনকি মৃত্যুর সম্মুখীন হন তাঁরা। ধর্ষিত হতে হয় বহু মহিলাকে। এ রাজ্যও তার ব্যতিক্রম নয়। আমরা বোধহয় এখনও তাপসী মালিককে ভুলে যাইনি!