নির্যাতিতা কিশোরীর খোঁজ নিতে হাসপাতালে ছুটে গেলেন কেজরিবাল

কেজরি জানান, অভিযুক্ত যুবককে ছাড়া হবে না। আর এই মামলায় মেয়েটির হয়ে যাতে কোনও অভিজ্ঞ আইনজীবী লড়েন, সেদিকেও আমার নজর থাকবে। 

Updated By: Aug 6, 2020, 06:30 PM IST
নির্যাতিতা কিশোরীর খোঁজ নিতে হাসপাতালে ছুটে গেলেন কেজরিবাল
ছবি : এএনআই

নিজস্ব প্রতিবেদন : আমার বুকের ভেতরটা যেন কেঁপে উঠল। এমন ঘৃণ্য কাজ করা অপরাধীদের ছেড়ে দেওয়া হবে না। দিল্লিতে ১৩ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ ও খুনের চেষ্টার ঘটনার পর টুইট করে নিজের প্রতিক্রিয়া জানালেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিবাল। শুধু টুইটই নয়, দিল্লি এইমসে ভর্তি থাকা কিশোরীর বর্তমান শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে পৌঁছে যান তিনি।

চিকিত্সকদের সঙ্গে কথা বলার পর কেজরি জানান, এখনও নির্যাতিতার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। চেতনা ফেরেনি। প্রয়োজনীয় অপারেশন করেছেন চিকিত্সকরা। আপাতত ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা কড়া নজরে রাখা হবে। 

এমন অমানবিক আচরণে তোলপাড় হয়ে গিয়েছে দিল্লি। পলাতক অভিযুক্তের কড়া শাস্তি চাইছেন সকলে। এদিন কেজরি জানান, অভিযুক্ত যুবককে ছাড়া হবে না। আর এই মামলায় মেয়েটির হয়ে যাতে কোনও অভিজ্ঞ আইনজীবী লড়েন, সেদিকেও আমার নজর থাকবে। 

মঙ্গলবার দিল্লিতে নিজের বাড়িতে একাই ছিল ১৩ বছরের কিশোরী। সেই সময়েই বাড়িতে ঢুকে তার উপর চড়াও হয় এক যুবক। শারীরিক নির্যাতনের পর কোনও ধারাল অস্ত্র দিয়ে অসংখ্য বার কিশোরীর মাথা ও মুখে আঘাত করা হয়। এরপর সেখান থেকে পালিয়ে যায় যুবকটি। 

কিছুক্ষণ পরেই প্রতিবেশিরা এসে দেখেন সারা বাড়ি রক্তাক্ত। অচৈতন্য অবস্থায় পরে নির্যাতিতা। সঙ্গে সঙ্গে তাকে স্থানীয় সঞ্জয় গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সেখান থেকে তাকে দিল্লি এইমসে রেফার করা হয়। 

দিল্লি পুলিস অভিযুক্তের খোঁজে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে। আশেপাশের প্রতিটি রাস্তার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পস্কো অ্যাক্ট (প্রোটেকশান অফ চিলড্রেন ফ্রম সেক্সুয়াল অফেন্সেস) ও খুনের চেষ্টার মামলা রুজু করা হয়েছে।
আরও পড়ুন : ভূমি পুজোর পরই মুসলিম নেতার হুমকি, ''রাম মন্দির ভেঙে মসজিদ হবে''