বেতন বৃদ্ধি-সহ অন্যান্য দাবিতে ব্যাঙ্ক বনধ ৩১ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি

সরকার ব্যাঙ্ক কর্মচারীদের দাবি না মানলে ১ এপ্রিল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটে যাবে ব্যাঙ্ক কর্মচারীরা

Reported By: অর্কময় দত্ত মজুমদার | Updated By: Jan 15, 2020, 05:29 PM IST
বেতন বৃদ্ধি-সহ অন্যান্য দাবিতে ব্যাঙ্ক বনধ ৩১ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি

নিজস্ব প্রতিবেদন: বেতন বৃদ্ধি সহ অন্যান্য দাবিতে জানুয়ারি ও ফ্রেব্রুয়ারি মাসে ধর্মঘটে যাচ্ছেন ব্যাঙ্ক কর্মচারীরা। এমাসের শেষদিন অর্থাত্ ৩১ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি বন্ধ থাকবে দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলি। সোমবার মুম্বইয়ে এক বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত নেয় ইউনাইটেড ফোরাম অব ব্যাঙ্ক ইউনিয়ন ও আইবিএ।

আরও পড়ুন-মুখে প্লাস্টিক বেঁধে টিকটক ভিডিয়ো করতে গিয়ে মৃত্যু মালদার যুবকের

বেতন কাঠামো পুনর্বিন্যাস-সহ ব্যাঙ্কের কর্মীদের অন্যান্য দাবির মধ্যে রয়েছে মাসের সব সপ্তাহেই ৫ দিন কাজ করবেন তাঁরা । গত বছর তাঁরা দাবি তুলেছিলেন মাসের দুটি সপ্তাহে তাঁরা পাঁচ দিন কাজ করবেন।

অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক অফিসার্স কনফেডারেশন-এর পশ্চিমবঙ্গ শাখার সাধারণ সম্পাদক  সঞ্জয় দাস জানিয়েছেন, ফেব্রুয়ারির পর মার্চ মাসের ১১, ১২ ও ১৩ তারিখে বন্ধ থাকবে ব্যাঙ্ক। সরকার ব্যাঙ্ক কর্মচারীদের দাবি না মানলে ১ এপ্রিল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটে যাবে ব্যাঙ্ক কর্মচারীরা।

সূত্রের খবর, ৩১ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারির বনধের পর অর্থমন্ত্রকের সঙ্গে দাবিদাওয়া নিয়ে আলোচনায় বসতে পারে ব্যাঙ্ক কর্মচারী ইউনিয়নগুলি। সেই বৈঠকে কোনও রফাসূত্র না বেরলে মার্চে ফের ধর্মঘট ১১, ১২ ও ১৩ তারিখ।

আরও পড়ুন-কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে রাজ্যপাল এলে বিক্ষোভ হবেই, সাফ জানাল ছাত্র সংসদ

ব্যাঙ্ক সংগঠনের নেতা সঞ্জয় দাস জানিয়েছেন, ব্যাঙ্ক কর্মচারীদের ১১তম বেতন চুক্তি কার্যকর করার প্রস্তাব পড়ে রয়েছে ২০০৭ সালের ১ নভেম্বর থেকে।  এরপর বেশ কয়েকার বৈঠক হয়েছে। কিন্তু সরকার তার দাবিতে অনড়। সরকার কোনও ভাবেই বাড়াতে চাইছে না। পেনশনের অবস্থাও খুবই খারাপ। এইসব দাবিতেই ব্যাঙ্ক ধর্মঘটে যাচ্ছেন ব্যাঙ্ক কর্মীরা।

ব্যাঙ্ক কর্মচারীদের দাবিগুলির মধ্যে রয়েছে-

২০ শতাংশ বেতনবৃদ্ধি।

সপ্তাহে ৫ দিন কাজ

নতুন পেনশন স্কিম বাতিল

পেনশন বাড়ানো

পারিবারিক পেনশন বাড়ানো

কাজের নির্দিষ্ট সময় ঠিক করা

একই কাজের জন্য একই বেতন চালু করা