নাগরিকত্ব বিলকে সমর্থন করায় দলের বিরুদ্ধেই সরব প্রশান্ত কিশোর, সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দা জেডিইউয়ের

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে সমর্থন দেওয়ায় দলের বিরুদ্ধেই সরব হলেন জেডিইউ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ভোটকৌশলী প্রশান্ত কিশোর।  সোশ্যাল মিডিয়ায় দলের নিন্দায় মুখ খুললেন তিনি।

Updated By: Dec 10, 2019, 09:19 AM IST
নাগরিকত্ব বিলকে সমর্থন করায় দলের বিরুদ্ধেই সরব প্রশান্ত কিশোর, সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দা জেডিইউয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদন: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে সমর্থন দেওয়ায় দলের বিরুদ্ধেই সরব হলেন জেডিইউ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ভোটকৌশলী প্রশান্ত কিশোর।  সোশ্যাল মিডিয়ায় দলের নিন্দায় মুখ খুললেন তিনি।

আরও পড়ুন-কমলো পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাব, এক ধাক্কায় পারদ নামল ২ ডিগ্রি

টুইটারে প্রশান্ত কিশোর লেখেন, ধর্মের ভিত্তিতে যে বিল তৈরি হয়েছে তাকে সমর্থন করেছে জিডিইউ। লোকসভায় দলও ওই ভূমিকা দেখে আমি হতাশ।  জেডিইউয়ের সংবিধানের প্রথম পাতাতেই তিন বার ধর্মনিরপেক্ষতার কথা রয়েছে।  ওই গাইডলাইনের পরও দলের নেতারা ওই কাজ করলেন।

উল্লেখ্য, সোমবার লোকসভায় পেশ করা হয় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল(Citizenship Amendment Bill)। দিনভর তোলপাড়ের পর একপ্রকার মধ্যরাতে লোকভায় পাস হয়ে যায় বিলটি। বিরোধীরা অভিযোগ তোলে, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (Citizenship (Amendment) Bill) বেআইনি ও অসাংবিধানিক।  এনিয়ে অমিত শাহ(Amit Shah) সংসদে বলেন, এই বিল সংবিধানের ৫ ও ১৪ নম্বর ধারা লঙ্ঘন করেনি। এমনকি নতুন আইন তৈরির ব্যবস্থাও রয়েছে সংবিধানে।

আরও পড়ুন-সুফল বাংলা স্টল-রেশন দোকান ও স্বনির্ভর গোষ্ঠী একযোগে বিক্রি শুরু করল ভর্তুকির পেঁয়াজ

এদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার সময়ে ইন্দিরা গান্ধীর আমলে বহু বাংলাদেশিকে ভারতে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। উগান্ডার মানুষদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। তাহলে এখন কেন নয়।  ধর্মের ভিত্তিতে দেশভাগ করেছে কংগ্রেস। আমরা তা করিনি। বেশিরভাগ মুসলিম পাকিস্তানে চলে গিয়েছেন। বাকিরা তৈরি করেছেন ভারত। ধর্মের ভিত্তিতে দেশভাগ না হলে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রয়োজন হতো না।