close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

হর্স ট্রেডিং রুখতে গেহলটের রাজ্যে বিধায়কদের স্থানান্তরিত করল কংগ্রেস

কংগ্রেসের দাবি, তাদের বিধায়কদের ২৫ থেকে ৫০ কোটি টাকার অফার করা হয়েছে। এই প্রলোভনের অফার বিজেপির তরফ থেকেই আসছে বলে অভিযোগ। এর জন্য বিধায়কদের স্থানান্তরিত করা হচ্ছে কংগ্রেস শাসিত রাজস্থানে

Updated: Nov 8, 2019, 03:58 PM IST
হর্স ট্রেডিং রুখতে গেহলটের রাজ্যে বিধায়কদের স্থানান্তরিত করল কংগ্রেস
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: কর্নাটক-বিভিষিকার স্মৃতি এখনও ফিকে হয়ে যায়নি। এবার মহারাষ্ট্রেও সেই ছায়া স্পষ্ট হতে শুরু করল। কংগ্রেস বিধায়কদের কাছে ‘কোটি টাকার’ অফার আসছে বলে অভিযোগ উঠছে। কংগ্রেস নেতা বিজয় ওদেত্তিয়ার আশঙ্কা করে জানান, কংগ্রেস বিধায়কদের প্রলোভন দেওয়া হচ্ছে। এর জন্য প্রত্যেককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ফোন রেকর্ড করার।

কংগ্রেসের দাবি, তাদের বিধায়কদের ২৫ থেকে ৫০ কোটি টাকার অফার করা হয়েছে। এই প্রলোভনের অফার বিজেপির তরফ থেকেই আসছে বলে অভিযোগ। এর জন্য বিধায়কদের স্থানান্তরিত করা হচ্ছে কংগ্রেস শাসিত রাজস্থানে। ওদেত্তিয়ার জানাচ্ছেন, জয়পুর অন্যতম পর্যটনক্ষেত্র।  নির্বাচনে খাটাখাটুনির পর একটু হাওয়া বদল করতেই জয়পুরে এসেছে বিধায়করা।

আরও পড়ুন- তিন সন্তানকে নিয়ে জলপান মায়ের, দেখুন ফরেস্ট অফিসারের ভিডিয়ো

‘অজুহাত’ যাই হোক না কেন, সম্প্রতি কর্নাটক নির্বাচনে দেখা গিয়েছে, কংগ্রেস বিধায়করা মুম্বইয়ের একটি হোটেল বন্দি থাকে প্রায় একমাস। এর পিছনে বিজেপিরই কারসাজি ছিল অভিযোগ। যতক্ষণ কংগ্রেস-জেডিএস জোট সরকারের পতন হয়, ততদিন ওই হোটেলে ছিলেন তাঁরা। পরবর্তীকালে তাঁদের বিধায়ক পদ খারিজ করে দেওয়া হয়। মহারাষ্ট্রে এখনও পর্যন্ত সরকার গড়ার লক্ষণ কিছু নেই। সরকার গড়ার জন্য প্রয়োজনীয় নম্বর আছে বলে বিজেপি দাবি করার পরই জল্পনা ওঠে তাহলে কংগ্রেসের বিধায়করা সমর্থন জানাচ্ছেন কিনা! উল্লেখ্য, কংগ্রেসের বিধায়ক সংখ্যা হল ৪৪। এনসিপি-র সঙ্গে জোটেও সরকার গড়ার কোনও সুযোগ নেই কংগ্রেসের।