বিজেপির ইস্তেহারে ৩৫এ বিলোপের প্রতিশ্রুতি, প্রয়োগ হলে ফল ভুগতে হবে হুঁশিয়ারি ফারুকের

উল্লখ্য, সম্প্রতি কাশ্মীরে পৃথক প্রধানমন্ত্রীর দাবি করে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ওমর আবদুল্লা। তিনি বলেছিলেন, “৩৫-এ ধারায় হাত দিলে জম্মু-কাশ্মীরের জন্য পৃথক প্রধানমন্ত্রী এবং  রাষ্ট্রপতির দাবি জানানো হবে।” 

Updated By: Apr 8, 2019, 05:53 PM IST
বিজেপির ইস্তেহারে ৩৫এ বিলোপের প্রতিশ্রুতি, প্রয়োগ হলে ফল ভুগতে হবে হুঁশিয়ারি ফারুকের
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: সদ্য প্রকাশিত বিজেপি ইস্তেহারে বলা হয়েছে, রেয়াত করা হবে না সন্ত্রাসবাদ। জম্মু ও কাশ্মীরের জন্য সংবিধানের ৩৭০ এবং ৩৫-এ অনুচ্ছেদও বাতিল করবে তাদের সরকার। পাশাপাশি, কাশ্মীরি পণ্ডিতদের প্রত্যর্পণে ব্যবস্থা করা হবে। বিজেপির এই ‘সংকল্প’-এর তীব্র সমালোচনা করলেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা ন্যাশনাল কনফারেন্স প্রধান ফারুক আবদুল্লা। পরবর্তীকালে যদি এই ইস্তেহার প্রয়োগ করা হয়, তা হলে ফল ভুগতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন আবদুল্লা।

৮১ বছর বয়সী ফারুক আবদুল্লা এ দিন বলেন, বিজেপি কীভাবে ৩৭০ এবং ৩৫-এ অনুচ্ছেদ বিলোপ করতে পারে। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের সম্পর্কে তাঁর আরও মন্তব্য, “বিজেপি কী ভাবে বাইরে থেকে লোক আনবে? আমাদেরকে হটানো হবে। আমরা কি ঘুমিয়ে আছি? এর মোকাবিলা করব আমরা।” ফারুক আরও বলেন, ৩৭০ বিলোপ করলে আল্লা কোথায় যাবেন? উপত্যাকার স্বাধীনতার জন্য যে কোনও মূল্য চোকানোর বার্তা দেন ফারুক।

আরও পড়ুন- নির্বাচনী প্রচার করতে গিয়ে ঝড়ের মুখোমুখি মনোজের হেলিকপ্টার, জরুরী অবতরণ উত্তরাখণ্ডে

উল্লখ্য, সম্প্রতি কাশ্মীরে পৃথক প্রধানমন্ত্রীর দাবি করে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ওমর আবদুল্লা। তিনি বলেছিলেন, “৩৫-এ ধারায় হাত দিলে জম্মু-কাশ্মীরের জন্য পৃথক প্রধানমন্ত্রী এবং  রাষ্ট্রপতির দাবি জানানো হবে।”  সোমবার, ‘সংকল্প পত্র’ নামে বিজেপির ইস্তেহারে প্রধানত জায়গা পায় দেশের সুরক্ষা এবং জাতীয়তাবাদ। বলা হয়েছে, সন্ত্রাসবাদ উত্খাই হবে পরবর্তী সরকারের অন্যতম লক্ষ্য। এর জন্য অনুপ্রবেশ সমস্যা কড়া হাতে মোকাবিলা করা হবে বলে জানিয়েছে বিজেপি।