‘কখনওই হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলিনি’, মুখ খুললেন অমিত শাহ

 সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে অমিত শাহ বলেছিলেন, হিন্দিই পারে দেশকে একসূত্রে বাঁধতে। কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ দেশে প্রত্যেক ভাষার নিজস্বতা রয়েছে

Updated By: Sep 18, 2019, 06:37 PM IST
‘কখনওই হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলিনি’, মুখ খুললেন অমিত শাহ
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: হিন্দি বিতর্কে সাফাই দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এএনআই সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, “আমি কখনওই আঞ্চলিক ভাষার উপর হিন্দিকে চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলিনি। মাতৃভাষার পর হিন্দিকে দ্বিতীয় ভাষা করার অনুরোধ জানিয়েছিলাম।” তাঁর কথায়, “আমি নিজেই অহিন্দি রাজ্য থেকে এসেছি। যদি এ নিয়ে কেউ রাজনীতি করতে চায়, সেটা তাঁদের বিষয়।”

উল্লেখ্য, সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে অমিত শাহ বলেছিলেন, হিন্দিই পারে দেশকে একসূত্রে বাঁধতে। কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ দেশে প্রত্যেক ভাষার নিজস্বতা রয়েছে। কিন্তু দেশের সবচেয়ে বেশি মানুষ হিন্দিতে কথা বলেন। তাই, হিন্দিই পারে দেশকে একসূত্রে জুড়তে। আন্তর্জাতিক মঞ্চে দেশকে তুলে ধরতে একটি রাষ্ট্রীয় ভাষার প্রয়োজন হয় বলে সওয়াল করেছিলেন অমিত শাহ।

আরও পড়ুন- দেশে ই-সিগারেট বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন

অমিত শাহের এই মন্তব্য আসার পর দেশজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। বিশেষ করে আঞ্চলিক ভাষাভাষির রাজ্যগুলি বিরোধিতা করে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, সব ভাষা এবং সংস্কৃতিকে সমানভাবে সম্মান জানানো উচিত। কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পাও মুখর হন অমিত শাহের হিন্দি মন্তব্যে। আজ দক্ষিণী সুপারস্টার রজনীকান্ত জানান, “কোনও ভাষা চাপিয়ে দেওয়া যাবে না। দক্ষিণ এমনকি উত্তরের রাজ্যগুলি এই পদক্ষেপ মেনে নেবে না।” তবে, এ কথাও বলেন, “একটি স্বীকৃত ভাষা দেশের উন্নয়নের পক্ষে ভাল। দুর্ভাগ্যবশত আমরা এটা করতে পারি না। ”