অনির্দিষ্টকাল শাটডাউনের জেরে এক ধাক্কায় ২৭ শতাংশ শেয়ারের দাম পড়ল জেট এয়ারওয়েজের

মোট ব্যাঙ্কের ঋণ ৮,৩৫০ কোটি টাকা। তিন মাসের বেতন বাকি কর্মচারিদের। এর সঙ্গে বিমান চালানোর জন্য রয়েছে আরও আনুষাঙ্গিক খরচ

Updated By: Apr 18, 2019, 02:07 PM IST
অনির্দিষ্টকাল শাটডাউনের জেরে এক ধাক্কায় ২৭ শতাংশ শেয়ারের দাম পড়ল জেট এয়ারওয়েজের
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: এক ধাক্কায় ২৭ শতাংশ পড়ল জেট এয়ারওয়েজের শেয়ারের দাম। আপত্কালীন সাহায্য হিসাবে ৪০০ কোটি টাকার  দাবি করেছিল জেট সংস্থা। গতকাল সেই দাবি সরাসরি খারিজ করে দেয় স্টেট ব্যাঙ্ক নেতৃত্বাধীন ঋণদাতাগোষ্ঠী। বৃহস্পতিবার, দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ ২৭ শতাংশ শেয়ারের দর পড়ে দাঁড়ায় ১৭৬ টাকায়। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, এই মুহূর্তে জেট সংস্থার মূলধন দাঁড়িয়েছে ১৮০৮ কোটি টাকা।

মোট ব্যাঙ্কের ঋণ ৮,৩৫০ কোটি টাকা। তিন মাসের বেতন বাকি কর্মচারিদের। এর সঙ্গে বিমান চালানোর জন্য রয়েছে আরও আনুষাঙ্গিক খরচ। গতকাল ঋণদাতা গোষ্ঠীর সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল জেট কর্তৃপক্ষ। পরিষেবা চালু রাখার জন্য ৪০০ কোটি টাকা আপত্কালীন সাহায্য চাওয়া হয়। কিন্তু শেয়ার নিলামে চূড়ান্ত প্রক্রিয়া না মেটা পর্যন্ত ওই সাহায্য দিতে অক্ষম বলে জানিয়ে দেয় ঋণদাতারা।

আরও পড়ুন- কান্ধমালে মাও হানা; ভোটকর্মীদের গাড়ি লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ-গুলি, নিহত নির্বাচনী পর্যবেক্ষক

আজ থেকে অনির্দিষ্টকাল পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে জেটের সমস্ত রকমের পরিষেবা। গত কাল রাতে দিল্লি থেকে অমৃতসর পর্যন্ত তাদের শেষ উড়ান যায়। উল্লেখ্য, গত মাসে ঋণে জর্জরিত জেটকে বাঁচাতে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ করে স্টেট ব্যাঙ্কের নেতৃত্বাধীন কনসোর্টিয়াম। এক টাকার বিনিময়ে কিনে নেওয়া ৫১ শতাংশ শেয়ার। অংশীদারি কমে যায় চেয়ারম্যান পদ থেকে সরে দাঁড়ান সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা নরেশ গয়াল। যত্সামন্য শেয়ার রয়েছে এতিহাদের-ও। সংস্থাকে ত্বরান্বিত করতে ১৫০০ কোটি টাকা অনুদান দেওয়ার সাহায্য ঘোষণা করে কনসোর্টিয়াম। সেই সাহায্য এখনও পর্যন্ত না মেলায় চরম অনিশ্চিয়তার মধ্যে রয়েছে সংস্থার কয়েক হাজার কর্মী।