মোদীর কাছে বেকারত্ব, খরা নিয়ে সংসদে আলোচনার দাবি বিরোধীদের

১৭ জুন শুরু হতে চলা সংসদের অধিবেশন শেষ হবে ২৬ জুলাই। 

Updated By: Jun 16, 2019, 05:09 PM IST
মোদীর কাছে বেকারত্ব, খরা নিয়ে সংসদে আলোচনার দাবি বিরোধীদের

নিজস্ব প্রতিবেদন: সপ্তদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশন শুরু হতে চলেছে আগামিকাল, সোমবার। তার আগে রবিবার সর্বদলীয় বৈঠক হল সংসদে। সরকার পক্ষ থেকে ডাকা ওই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সবপক্ষের কাছে সুষ্ঠুভাবে অধিবেশন চালাতে দেওয়ার আবেদন করেছেন।

এদিন প্রধানমন্ত্রী জানান, তাঁরা জনগণের প্রতিনিধি। তাই সংসদে কাজে বাধা দিয়ে সাধারণ মানুষকে হতাশ করা উচিত নয়। রাজনৈতিক মতাদর্শকে দূরে সরিয়ে রেখে দেশের উন্নতির জন্য সকলকে একসঙ্গে কাজ করা উচিত।

আরও পড়ুন: শহিদ বন্ধুকে শ্রদ্ধা, বিপুল টাকা খরচ করে সহযোদ্ধার বোনের বিয়ে দিলেন গরুড় কমান্ডোরা

এদিনের বৈঠকেও মোদী সবকা সাথ, সবকা বিকাশ ও সবকা বিশ্বাসের তত্ত্ব তুলে ধরেছেন। ২০২২ সালের মধ্যে নতুন ভারত গড়তে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। দেশের স্বার্থে সংসদের দুই কক্ষেই সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনায় সরকার রাজি বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিনের বৈঠকের পৌরহিত্য করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যসভায় বিরোধী দলেনেতা কংগ্রেসের গুলাম নবি আজাদ, ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ফারুক আবদুল্লা, তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়ান-সহ বিরোধীদের একাধিক নেতা। এছাড়াও ছিলেন সরকার পক্ষের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী।

আরও পড়ুন: পুলওয়ামা ধাঁচে হামলা হতে পারে অবন্তিপোরায়; সতর্কতা পাকিস্তানের, জম্মু-কাশ্মীরে জারি হাই অ্যালার্ট

এদিনের বৈঠকে বিরোধী পক্ষের তরফে কংগ্রেস সাংসদ গুলাম নবি আজাদ সংসদে কৃষকদের সমস্যা, বেকারত্ব ও খরা নিয়ে আলোচনার দাবি জানান। একই সঙ্গে তিনি জম্মু-কাশ্মীরে দ্রুত বিধানসভার নির্বাচন করার দাবি জানিয়েছেন।

তৃণমূলের সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়ান মহিলা সংরক্ষণ বিল নিয়ে দাবি তোলেন। দ্রুত ওই বিল সংসদে পেশ করার দাবি জানান সরকারের কাছে। প্রসঙ্গত, এই বিল পাস হয়ে গেলে লোকসভা ও বিধানসভায় মহিলা সদস্যের সংখ্যা হতে হবে এক তৃতীয়াংশ।

আরও পড়ুন: পড়াশোনা ছেড়ে বিয়ে করতে নারাজ, কিশোরীকে ছুরি মেরে ক্যানেলে ফেলে দিল বাবা

উল্লেখ্য, ১৭ জুন শুরু হতে চলা সংসদের অধিবেশন শেষ হবে ২৬ জুলাই। লোকসভার অধিবেশন বসবে ৩০ দিন। রাজ্যসভার অধিবেশন বসবে ২৭ দিন। এবারের অধিবেশনে সদ্য জয়ী সাংসদদের শপথগ্রহণ, অধ্যক্ষের নির্বাচন, রাষ্ট্রপতির ভাষণের উপর ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও বাজেট পেশ করা হবে।