BJP-র বিরুদ্ধে বিক্ষোভ,কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা ছাড়তে চাওয়া,Sunil-কে ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে

সংসদের অধিবেশনে তৃণমূল সাংসদের সঙ্গেই বসেন পূর্ব বর্ধমানের সাংসদ।

Updated By: Aug 2, 2021, 07:33 PM IST
BJP-র বিরুদ্ধে বিক্ষোভ,কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা ছাড়তে চাওয়া,Sunil-কে ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রথমে সকলের চোখ এড়িয়ে মুকুল রায়ের সঙ্গে একাধিকবার সাক্ষাৎ। এবার সংসদে তৃণমূল সাংসদদের সঙ্গে একই আসনে বসলেন পূর্ব বর্ধমানের সাংসদ সুনীল মণ্ডল। ওয়েলে নেমে সুদীপ বন্দ্য়োপাধ্যায়দের সঙ্গে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখালেন তিনি। Pegasus ইস্য়ুতে সরব হলেন বিজেপির বিরুদ্ধে। এমনকী, কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা ছাড়াতে চেয়ে চিঠি দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে। 

সোমবার লোকসভার অধিবেশন শুরু হলে, তৃণমূল সাংসদদের সঙ্গে নিজের পুরনো জায়গায় বসতে দেখা যায় সুনীল মণ্ডলকে। এরপর ওয়েলে নেমে বিজেপির বিরুদ্ধে স্লোগানও দেন তিনি। তৃণমূল ছেড়ে যে দলে তিনি যোগ দিয়েছিলেন তিনি, সেই দলের বিরুদ্ধেই সুনীলকে সরব হতে দেখে, অনেকেই প্রথমে চমকে যান। তবে পূর্ব বর্ধমানের সাংসদের বিষয়টি স্পষ্ট করেন। তিনি সাফ জানান, 'তৃণমূলেই আছি'। এরপর কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা ছাড়তে চেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে চিঠিও দেন সুনীল মণ্ডল। কারণ হিসেবে জানান, জওয়ানদের খরচ চালানো নাকি তাঁর পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। তবে শুধুই কি তাই? রাজনৈতিক মহলে সুনীল মণ্ডলের 'ঘর ওয়াপসি'র জল্পনা তুঙ্গে।  

আরও পড়ুন: Bright Saturn: পৃথিবীর কি 'শনির দশা'? প্রতি বছরই ঘটে, মত জ্যোতির্বিদদের

আরও পড়ুন: Probe Into Pegasus: এবার পেগাসাস-কাণ্ডের তদন্ত দাবি নীতীশের, অস্বস্তিতে বিজেপি

২০২১-এর বিধানসভা ভোটের আগে শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন সুনীল মণ্ডল। ভোটপ্রচারে তীব্র ভাষায় তোপ দাগেন তৃণমূল নেতৃত্বকে। তবে ২ মে ভোটের ফল প্রকাশ হলে দেখা যায়, বিজেপির 'ডবল ইঞ্জিন' সরকার গড়ার স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছে। 'বাংলার মেয়ে'র উপরই ভরসা রেখেছে রাজ্যের মানুষ। এরপর থেকেই দলে দলে দলত্যাগী নেতা-কর্মীরা 'ঘর ওয়াপসির' জন্য ময়দানে নেমে পড়েন। মুকুল রায়ের তৃণমূলের প্রত্যাবর্তনের পর, সেই গতি আরও বৃদ্ধি পায়। সোনালী গুহ, দীপেন্দু বিশ্বাস, রাজীব বন্দ্য়োপাধ্য়ায়ের মতো, পূর্ব বর্ধমানের সাংসদ সুনীল মণ্ডলও বিজেপি থেকে তৃণমূলের ফিরতে চান। এমনকী ভোটের ফল প্রকাশের পর বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন তিনি। শুভেন্দু অধিকারীকেও নিশানা করেছিলেন