হাদিয়ার বিয়ের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারে না এনআইএ, সাফ জানাল সুপ্রিম কোর্ট

সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ এদিন মন্তব্য করে, ‘আপানারা আপনাদের তদন্ত চালিয়ে ‌যেতে পারেন। সন্দেহভাজনদের গ্রেফতার করতে পারেন। এনিয়ে আদালতে কোনও মাথাব্যাথা নেই। তবে আখিলার বৈবাহিক জীবনে হস্তক্ষেপ করতে পারেন না।‘

Updated By: Jan 23, 2018, 02:06 PM IST
হাদিয়ার বিয়ের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারে না এনআইএ, সাফ জানাল সুপ্রিম কোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদন: কেরল লাভ জিহাদ মামলায় নতুন মোড়। সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিল, সাফিন জাহান ও আখিলা অশোকানের বিয়ে বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারবে না তদন্তকারী সংস্থা। তবে ওই বিয়ে কোনও লাভ জিহাদ কিনা তা তদন্ত করে দেখা ‌যেতে পারে।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের ৩ বিচারপতির বেঞ্চে একপ্রকার ধাক্কা খেল কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ। প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বে গঠিত বেঞ্চ জানিয়ে দিল হাদিয়া এখন সাবালক। তাই এনআইএ তাঁর বিবাহিত জীবনে হস্তক্ষেপ করতে পারে না।

সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ এদিন মন্তব্য করে, ‘আপানারা আপনাদের তদন্ত চালিয়ে ‌যেতে পারেন। সন্দেহভাজনদের গ্রেফতার করতে পারেন। এনিয়ে আদালতে কোনও মাথাব্যাথা নেই। তবে আখিলার বৈবাহিক জীবনে হস্তক্ষেপ করতে পারেন না।‘

অারও পড়ুন-বিমানে ইন্টারনেট, একলাফে ভাড়া বাড়তে পারে অনেকটাই

আদালত এদিন আরও বলেন, হাদিয়া আদলতে জানিয়েছে সে নিজের ইচ্ছাতেই সাফিন জাহানকে বিয়ে করেছে। তাই কেরল হাইকোর্ট তাদের বিয়ে নাকচ করে দেওয়ার ‌যে নির্দেশ দিয়েছে তা সঠিক কিনা তা বিবেচনা করে দেখা হবে। একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ নিজের ইচ্ছায় বিয়ে করতে পারে কিনা সেটাই আমাদের বিচা‌র্য বিষয়।’

উল্লেখ্য, কেরলের ‌যুবক সাফিন জাহানকে বিয়ে করেন আখিলা অশোকান। বিয়ের পর নাম বদল করে হাদিয়া নাম নেন। এরপরই আদালতে মামলা করেন আখিলার বাবা। তাঁর ‌যুক্তি আখিলাকে আটকে রেখে, জোর করে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে। এনিয়ে মামলা গড়িয়েছে সুপ্রিম কোর্ট প‌র্যন্ত।